ট্রিপল সেঞ্চুরি, অতঃপর বাদ

Sports220170209125212ক্রীড়া ডেস্ক:  রেকর্ডের পাতা খুললে দেখা যায় ভারতের নামের পাশে মাত্র তিনটি ট্রিপল সেঞ্চুরি। দুটি বীরেন্দ্র শেবাগের, একটি করুণ নায়ারের। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে গত বছরের ডিসেম্বরে ৩০৩ রানের অসাধারণ ইনিংস উপহার দেন করুণ নায়ার। ওই ম্যাচের পর ভারত সাদা পোশাকে কোনো ম্যাচ খেলেনি। তাই সবার নজরের বাইরে ছিলেন নায়ার। আজ বাংলাদেশের বিপক্ষে আবারও টেস্ট খেলতে মাঠে নেমেছে ভারত। কিন্তু টিম ইন্ডিয়ার একাদশে জায়গা হয়নি ট্রিপল সেঞ্চুরিয়ান করুণ নায়ারের।

ইতিহাসের পাতা খুললে দেখা যায়, এর আগে টেস্ট ক্রিকেটে এমন ঘটনা ঘটেছে তিনবার। ট্রিপল সেঞ্চুরির পর পরের টেস্ট খেলেননি অ্যান্ডি স্যান্ডহাম, লেন হাটন ও ইনজামাম-উল-হক। ইংল্যান্ডের অ্যান্ডি স্যান্ডহাম ১৯৩০ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে কিংসটনে ৩২৫ রানের ইনিংস খেলার পর অবসরে যান। লেন হাটন ১৯৩৮ সালে স্যার ডন ব্র্যাডম্যানের ৩৩৪ রানের রেকর্ড ভেঙে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৩৬৪ রানের ইনিংস খেলেন।  সে সময়ে লেন হাটনের ইনিংসটি ছিল টেস্ট ক্রিকেটের সর্বোচ্চ রানের ইনিংস। পরবর্তী সময়ে আঙুল ভেঙে যাওয়ায় ছয় সপ্তাহ মাঠের বাইরে ছিলেন ইংল্যান্ডের প্রাক্তন অধিনায়ক। খেলতে পারেননি ডিসেম্বরে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে।

২০০২ সালে লাহোরে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ৩২৯ রান করেছিলেন ইনজামাম-উল-হক। একবিংশ শতাব্দীর প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ইনজামাম পেয়েছিলেন ট্রিপল সেঞ্চুরির স্বাদ। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের পরের ম্যাচটি অবশ্য হয়নি। করাচিতে দুই দলের ম্যাচ শুরু দুই ঘণ্ট আগে টিম হোটেলের সামনে গাড়িবোমা বিস্ফোরণে ১৪ জন নিহত হন। পরে দুই দল মাঠে নামতে অপারগতা প্রকাশ করে।

সফর বাতিল করে দ্রুত পাকিস্তান ত্যাগ করে নিউজিল্যান্ড। কিছুদিন পর অক্টোবরে পাকিস্তানে যাওয়ার কথা ছিল অস্ট্রেলিয়ার। কিন্তু অস্ট্রেলিয়া পাকিস্তানে যেতে রাজি না হওয়ায় পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড শ্রীলঙ্কা ও শারজায় টেস্ট সিরিজের আয়োজন করে। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের কোনোটিতেই ছিলেন না ইনজামাম-উল-হক।

সুনিল গাভাস্কার, শচীন টেন্ডুলকার, রাহুল দ্রাবিড, সৌরভ গাঙ্গুলি, ভিভি এস লক্ষ্মণ কিংবা বিরাট কোহলির মতো ব্যাটসম্যানের নামের পাশে নেই কোনো ট্রিপল সেঞ্চুরি। করুণ নায়ার সেই কাজটি করে দেখিয়েছিলেন। কিন্তু দুর্ভাগ্য রাজস্থানের এই ব্যাটসম্যানের। ৩০৩ রানের ইনিংস খেলেও পরবর্তী টেস্টে তাকে পানি টানার কাজ করতে হচ্ছে! তার পরিবর্তে খেলছেন আজিঙ্কা রাহানে। রাহানের ইনজুরিতে ইংল্যান্ড সিরিজে তৃতীয় টেস্টে অভিষেক হয়েছিল নায়ারের।

অভিষেকের প্রথম ইনিংসে মাত্র ৪ রান করে রানআউটের দুঃখ নিয়ে ফিরতে হয়েছিল তাকে। পরের ইনিংসে করেন ১৩ রান। এরপরই খেলেন ৩০৩ রানের নজরকাড়া ইনিংস। অবশ্য ট্রিপল সেঞ্চুরির পর ভালো ইনিংস খেলতে পারছিলেন না নায়ার। সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স বিবেচনায় তাকে একাদশে সুযোগ দেওয়া হয়নি। কর্ণটকের হয়ে রঞ্জি ট্রফিতে দুই ইনিংসে রান ১৪ ও ১২ এবং ইরানি কাপে রেস্ট অব ইন্ডিয়ার হয়ে রান ২৭ ও ৭। এ ছাড়া তিনটি টি-টোয়েন্টিতে রান যথাক্রমে ১৪, ১২ ও ৪।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like