এক যুগ বন্দি ৫ জনকে হাইকোর্টের জামিন

Court20170126120642আইন আদালত ডেস্ক : বিনা বিচারে এক যুগের বেশি সময় ধরে কারাগারে থাকা নেত্রকোনার গারো তরুণ লিটনসহ ৫ জনকে জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট।

অন্য চারজন হলেন কুষ্টিয়ার রাসেল শেখ, মতিঝিলের মাসুদ, গাজীপুরের বোর্ডবাজারের বাবু ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পারভেজ।

অপরদিকে রাজধানীর বাড্ডার সাইদুর রহমান ও কেরানীগঞ্জের রাজীব হোসেনকে জামিন না দিয়ে তাদের মামলা ৩ মাসের মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিচারপতি মো. নুরুজ্জামান ও বিচারপতি এস এস এইচ মো. নুরুল হুদা জায়গীরদারের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

আদালতে বন্দিদের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী বেহেশতী মারজান।

এর আগে সকালে বিনা বিচারে কারাগারে থাকা এই সাতজনকে হাইকোর্টে হাজির করে কাশিমপুর কারা কর্তৃপক্ষ।

গত ১৫ ডিসেম্বর বিনা বিচারে কারাগারে থাকা সাতজনকে কেন জামিন দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন হাইকোর্ট। এই সাতজন বিনা বিচারে বিভিন্ন মামলায় এক যুগের বেশি সময় ধরে কাশিমপুর-২ কারাগারে বন্দি ছিলেন।

সম্প্রতি একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল এই সাতজনকে নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রচার করে। প্রচারিত এই প্রতিবেদন আদালতে উপস্থাপন করেন সুপ্রিম কোর্ট লিগ্যাল এইড কমিটির প্যানেল আইনজীবী বেহেশতী মারজান।

রাসেল শেখ

কুষ্টিয়া সদরের আইয়ুব শেখের ছেলে রাসেল শেখ ২০০৪ সালে কাফরুল থানায় একটি মামলায় ওই বছরের ১১ ডিসেম্বর থেকে কারাগারে রয়েছেন। অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদালত-৩ ঢাকায় বিচারাধীন এ মামলায় তাকে এ পর্যন্ত ৫৫ কার্যদিবস হাজির করা হয়।

সাইদুর রহমান

বাড্ডার আদর্শনগরের তাইবুর রহমানের ছেলে সাইদুর রহমান নারী নির্যাতনের এক মামলায় ২০০৫ সালের ৬ সেপ্টেম্বর থেকে কারাগারে রয়েছেন। ঢাকার নারী ও শিশু আদালত-৪ বিচারাধীন এ মামলায় সাইদুরকে ৫৯ বার আদালতে হাজির করা হয়।

রাজীব হোসেন

কেরানীগঞ্জের ইমানদীপুরের মাহবুব আলমের ছেলে রাজীব হোসেন খিলগাঁও থানায় দায়ের করা এক মামলায় ২০০৩ সালের ৬ ডিসেম্বর থেকে কারাগারে রয়েছেন। অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদালত-৪ ঢাকায় বিচারাধীন এ মামলায় ৪৪ কার্যদিবস হাজির করা হয়েছে।

মো. পারভেজ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পৈতলার চান মিয়ার ছেলে মো. পারভেজ কোতোয়ালি থানায় নারী নির্যাতনের অভিযোগে করা এক মামলায় ২০০৪ সালের ২ জুলাই থেকে কারাগারে রয়েছেন। ঢাকার নারী ও শিশু আদালত-৩ বিচারাধীন এ মামলায় পারভেজকে ৪২ কার্যদিবসে আদালতে হাজির করা হয়েছে।

মাসুদ

মতিঝিলের ওবায়দুর রহমানের ছেলে মাসুদ শ্যামপুর থানার এক মামলায় ২০০৩ সালের ১ এপ্রিল থেকে কারাগারে রয়েছেন। অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদালত-২ ঢাকায় মামলাটি বিচারাধীন রয়েছে।

বাবু

গাজীপুরের জয়দেবপুরের বোর্ডবাজার এলাকার শাহাবুদ্দিনের ছেলে বাবু রমনা থানায় দায়ের হওয়া নারী নির্যাতনের এক মামলায় ২০০৩ সালের ১১ ডিসেম্বর থেকে কারাগারে রয়েছেন। ঢাকার নারী ও শিশু আদালত-৩ বিচারাধীন এ মামলায় বাবুকে ৪৪ কার্যদিবসে আদালতে হাজির করা হয়েছে।

লিটন

নেত্রকোনার কমলাকান্দার চেংগিনি এলাকার প্রসেন সাংমার ছেলে লিটন উত্তরা থানায় দায়ের হওয়া এক মামলায় ২০০৫ সালের ২৩ জানুয়ারি থেকে কারাগারে রয়েছেন। অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদালত-৮ ঢাকায় বিচারাধীন এ মামলায় ৫৮ কার্যদিবস হাজির করা হয়েছে।

সূত্র : রাইজিংবিডি

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like