ছেলের নাম তৈমুর রাখার কারণ জানালেন সাইফ

taimur-bg20170117211329

বিনোদন ডেস্ক :  অভিনেতা সাইফ আলি খান ও তার স্ত্রী কারিনা কাপুর খান তাদের পুত্রসন্তানের নাম কেনো তৈমুর রেখেছেন তা ব্যাখ্যা করলেন। এই নাম রাখার কারণে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাদের সমালোচনা করে অনেকে।

মুম্বাই মিররকে ৪৬ বছর বয়সী সাইফ বলেছেন, ‘তৈমুর নামটির বললে কানে যে ধ্বনি আসে আমার স্ত্রী ও আমি তা পছন্দ করি। এই নামের অর্থও আমাদের ভালো লাগে। তুর্কি শাসক তিমুরের ইতিহাস সম্পর্কে আমি সচেতন। কিন্তু আমাদের ছেলের নাম তৈমুর। এটি প্রাচীন ফার্সি নাম যার অর্থ লোহা।’

গত মাসে সন্তানের জন্মের পর তৈমুর নামটি বেছে নেওয়ায় বিতর্কিত হন সাইফ ও কারিনা। টুইটারে নানাজন মন্তব্য করে, ত্রয়োদশ শতকে দিল্লিতে ধ্বংসযজ্ঞ চালানো মধ্য এশিয়ার আক্রমণকারী তিমুরের কথা ভেবেই তারা এই নাম বেছে নিয়েছেন। মুম্বাইয়ের ব্রিচ ক্যান্ডি হাসপাতালে গত ২০ ডিসেম্বর জন্মগ্রহণ করে তৈমুর আলি খান।

যোগ করে সাইফ বলেছেন, ‘তৈমুরকে ঘিরে অপ্রয়োজনীয় আলোচনা করায় নানান মন্তব্য শুনেছি। এ নিয়ে কিছু বলার প্রয়োজনীয়তা দেখিনি। কারণ অনেকেই মনে যা এসেছে তা ইচ্ছেমতো বলেছেন। কিন্তু বাবা হিসেবে সন্তানের নাম রাখার স্বাধীনতা আমার আছে। ছবিতে যেমন ডিসক্লেইমার থাকে আমারও হয়তো তেমন কিছু রেখে বলা উচিত ছিলো- আমার ছেলের নামের সঙ্গে যদি কোনো জীবিত অথবা মৃত মানুষের মিল পাওয়া যায় তাহলে তা কাকতালীয়!’

মুম্বাই মিররকে সাইফ আরও বলেন, ‘কিছু মানুষ নামটি নিয়ে অভিযোগের আঙুল তুলেছে ঠিকই, কিন্তু মধ্যযুগীয় ইতিহাসের দিকে তাকিয়ে যাচাই-বাছাই করুন। আমি তো মনে করি এটা হাস্যকর।’

টুইটারে তৈমুর নাম নিয়ে হাসাহাসি হওয়ায় কারিনার চাচা ঋষি কাপুর নিন্দা জানান। তার মতে, সন্তানের নাম রাখাটা পুরোপুরি মা-বাবার ব্যাপার। এক্ষেত্রে অন্যদের নাক গলানো উচিত নয়।

পাঁচ বছর প্রেমের পর ২০১২ সালে বিয়ে করেন সাইফ ও কারিনা। এর আগে অভিনেত্রী অমৃতা সিংকে বিয়ে করেছিলেন ছোট নবাব। ওই সংসারে আছে পুত্র ইব্রাহিম ও কন্যা সারা।

এদিকে সাইফের নতুন ছবি ‘রেঙ্গুন’-এর ট্রেলার ও গান বেরিয়েছে ইউটিউবে। বিশাল ভরদ্বাজের পরিচালনায় এতে আরও অভিনয় করেছেন কঙ্গনা রনৌত ও শহিদ কাপুর। আর কারিনা শিগগিরই ‘ভিরে ডি ওয়েডিং’ নামের একটি ছবির শুটিং শুরু করবেন।

-বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like