জেলা পরিষদের নবনির্বাচিত সদস্য আহমদ উল্লাহ ও লিটুকে কুতুবদিয়ায় গণসংবর্ধনা

kutobdia-pic-8-1-17

চকরিয়া প্রতিনিধি, ০৯ জানুয়ারি: কক্সবাজার জেলা পরিষদের নবনির্বাচিত সদস্য জাহেদুল ইসলাম লিটু ও মাষ্টার আহমদ উল্লাহকে গণসংবর্ধনা দেয়া হয়েছে। রোববার কুতুবদিয়ার কৈয়ারবিল হাইস্কুল মাঠে এ গণসংবর্ধনা অনুষ্টানে মানুষের ঢল নেমেছিল।
নাগরিক কমিটির আয়োজনে অনুষ্ঠিত সংর্বধনা অনুষ্টানে প্রধান অতিথি ছিলেন- চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব জাফর আলম।
কক্সবাজার জেলা পরিষদের নির্বাচনে চকরিয়া উপজেলা থেকে বিপুল ভোটে নির্বাচিত জেলা পরিষদের সদস্য চকরিয়া পৌরসভা আওয়ামীলীগের সভাপতি কুতুবদিয়া উপজেলাবাসির মেয়ের জামাই জাহেদুল ইসলাম লিটু ও কুতুবদিয়া উপজেলা থেকে নির্বাচিত জেলা পরিষদ সদস্য মাষ্টার আহমদ উল্লাহকে দেয়া নাগরিক সংর্বধনা অনুষ্টানটি দুপুর ১২টার দিকে শুরু হলে মিছিলে মিছিলে সংবর্ধনাস্থলটি জনসমুদ্রে পরিণত হয়।
অনুষ্টানে প্রধান অতিথি বলেন, অনুষ্টিত জেলা পরিষদ নির্বাচনে চকরিয়া ও কুতুবদিয়া উপজেলার জনপ্রতিনিধিরা প্রার্থী নির্বাচনে ভুল করেনি। তাঁরা এলাকার উন্নয়নের স্বার্থে সকল ধরণের লোভ-লালসা পরিহার করে যোগ্য প্রার্থীকে ভোট দিয়েছেন। তাদের পবিত্র আমানত প্রয়োগের মাধ্যমে আওয়ামীলীগ সভানেত্রী দেশরত্ম প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করেছেন। আমি বিশ^াস করি আগামীতে চকরিয়া, কুতুবদিয়াবাসি যোগ্য নেতৃত্বের মাধ্যমে এলাকার উন্নয়নে শতভাগ সফল হবেন।
তিনি বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য উত্তরসুরী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামীলীগ সরকার কথায় নয়, কাজেই বিশ^াসী। তার প্রমাণ হলো বিদেশীদের সহায়তা ছাড়া নিজেদের টাকায় পদ্মা সেতু নির্মাণ। বর্তমানে এ সেতুটি প্রায় ৪০ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক চার লেনে উন্নীত হয়েছে। মহেশখালী মাতারবাড়িতে চলছে তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের কাজ। আগামী কিছুদিনের মধ্যে শুরু হচ্ছে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার অঞ্চলের অন্তত শতাধিক মেগা উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ। দেশরত্ম শেখ হাসিনা যেটি ঘোষনা দেন তা অক্ষরে অক্ষরে বাস্তবায়ন করেন। ২০১৮ সালের মধ্যে শুরু হবে দোহাজারী ঘুমধুম রেল লাইন স্থাপনের কাজ।
সরকারের সফলতা তুলে ধরে জাফর আলম বলেন, এক সময় দ্বীপ উপজেলা কুতুবদিয়া, মহেশখালী, পেকুয়া উপজেলার জনগনকে জানমালের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্ন থাকতে হতো। এখন সেই আশঙ্কা ও আতঙ্ক নেই। বর্তমানে কুতুবদিয়া, মহেশখালী ও পেকুয়া উপজেলায় চলছে টেকসই বেড়িঁবাধ নির্মাণ কাজ। এসব উন্নয়ন কাজে সরকারি বরাদ্দের পরিমাণ হাজার কোটি টাকা ছাঁিড়য়ে যাবে।
তিনি বলেন, আগামীতে শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন এ সরকার ক্ষমতায় আসলে চকরিয়া, পেকুয়া, মহেশখালী, কুতুবদিয়া উপজেলা এবং আশপাশের কয়েকটি উপজেলাকে সংযুক্ত করে নতুন জেলা ঘোষনা করা হবে। এ নিয়ে বর্তমানে সরকারের উচ্চ মহলে প্রয়োজনীয় প্রক্রিয়া চলছে। এখানে জেলা ঘোষনা করা হলে আগামীতে কুতুবদিয়ার মানুষকে ঝড়-জ¦লোচ্ছাসের সময় বাড়িভিটা ফেলে অন্য কোন স্থানে চলে যেতে হবেনা। কারন সরকার এ জনপদকে জনগনের বাস উপযুগী হিসেবে গড়ে তুলবে। তাই জনগনকে আশ^স্ত করতে পারি, আপনারা নির্ভয়ে থাকুন, আওয়ামীলীগের জন্য কাজ করুন, শেখ হাসিনার নেতৃত্ব অবিচল থাকুন। দেখবেন একদিন আপনাদের সফলতা আসবে।
তিনি বলেন, জাহেদুল ইসলাম লিটু চকরিয়ার সন্তান। কুতুবদিয়া থেকে বিয়ে করেছে। কিন্তু তাকে আপনারা সংবর্ধনার মাধ্যমে যেভাবে সম্মান দেখিয়েছেন তা লিটু ও তার পরিবার কোনদিন শোধ করতে পারবেনা। আমি আপনাদের এ সম্মানকে স্যালুট জানাই। তিনি পাশাপাশি কুতুবদিয়া উপজেলার কৈয়ারবিল ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান জনপ্রিয় আওয়ামীলীগ নেতা মাষ্টার আহমদ উল্লাহকে জেলা পরিষদের সদস্য নির্বাচিত করায় কুতুবদিয়া উপজেলার সকল জনপ্রতিনিধি এবং জনগনের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
সংবর্ধনা অনুষ্টানে বিশেষ অতিথি ছিলেন- চকরিয়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আঞ্চলিক গানের সম্রাট সিরাজুল ইসলাম আজাদ, কুতুবদিয়া উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ইদ্রিছ খন্দকার খোকন, সংবর্ধিত অতিথি মাষ্টার আহমদ উল্লাহ, সংবর্ধিত অতিথি জাহেদুল ইসলাম লিটু, কৈয়ারবিল ইউপি চেয়ারম্যান জালাল আহমদ সিকদার, চকরিয়া উপজেলার চিরিঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি জসীম উদ্দিন, কাকারা ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শওকত ওসমান, চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুল ইসলাম, লক্ষ্যারচর ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তাফা কাইছার, চকরিয়া পৌরসভার প্যানেল মেয়র বশিরুল আইয়ুব, পৌর কাউন্সিলর মকছুদুল হক মধু, কাউন্সিলর জিয়াবুল হক, কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম, কাউন্সিলর ফোরকানুল ইসলাম তিতু, আওয়ামীলীগ নেতা রুস্তম শাহরিয়ার, চকরিয়া পৌরসভা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক ফেরদৌস ওয়াহিদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মুজিবুর রহমান লিটন, চকরিয়া পৌরসভা যুবলীগের সভাপতি হাসানগীর হোছাইন।
উপস্থিত ছিলেন- পৌরসভা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল হামিদ, উপজেলা যুবলীগ নেতা জয়নাল হাজারী, পৌরসভা মৎস্যজীবিলীগের সাধারণ সম্পাদক মো.আবদুল হামিদ, পৌরসভা যুবলীগের সহ-দপ্তর সম্পাদক মোহাম্মদ ইলিয়াছ, মুজিব সিকদার, সাইফুল, ছাত্রলীগ নেতা সোহেল রানা, আজাদ, সাদ্দাম, মোহাম্মদ আলম, আজিজ প্রমুখ।
সংবর্ধনা সভা শেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্টান পরিবেশন করা হয়।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like