শিরোপার স্বপ্ন অধরাই থাকল বাংলাদেশের

0011483536299ক্রীড়া ডেস্ক : ছেলেদের ফুটবল যখন নির্বাসনে, তখন আশার আলো হয়ে জ্বলতে শুরু করেছে মেয়েদের ফুটবল। জাতীয় দল কিংবা বয়সভিত্তিক দল, প্রায় সব ধরনের প্রতিযোগিতায় মেয়েদের সাফল্য চোখে পরার মতো। ব্যতিক্রম ছিল না সাফ মহিলা চ্যাম্পিয়নশিপের চতুর্থ আসরও।

সেমিফাইনাল খেলার লক্ষ্য নিয়ে ভারতের শিলিগুড়িতে গিয়ে ফাইনাল খেলেছে বাংলাদেশ। কিন্তু অভিজ্ঞতায় পরিপূর্ণ ভারতের মেয়েদের সঙ্গে পেরে ওঠেনি।

বুধবার শিলিগুড়ির কাঞ্চনজঙ্ঘা স্টেডিয়ামে ফাইনালে ভারতের কাছে ৩-১ গোলে হেরে স্বপ্নের শিরোপা অধরাই থাকে বাংলাদেশের। বাংলাদেশকে হারিয়ে টানা চতুর্থ শিরোপার স্বাদ নিয়েছে ভারত। আর প্রথমবারের মতো রানার্স-আপ হওয়ার কৃতিত্ব দেখিয়েছে বাংলাদেশের মেয়েরা।

গ্রুপপর্বে আফগানিস্তানের মতো শক্তিশালী দলকে ৬-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে ও ভারতের মতো দলকে রুখে দিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে সেমিফাইনালে ওঠে বাংলাদেশ। তখন স্বপ্নের রঙ ছড়াতে শুরু করেছিল বাংলাদেশের মেয়েরা।

সেমিফাইনালে মালদ্বীপের জালে অাধ ডজন গোল দিলে স্বপ্নটা আরো বড় হয় বাংলাদেশের কোটি কোটি ফুটবলপ্রেমীদের। ছেলেদের ফুটবলের ব্যর্থতায় যারা হতাশ ও মুষড়ে পড়েছিলেন তারাও আশায় বুক বেঁধেছিলেন। তাহলে ২০০৩ সালে ছেলেদের পর এবার মেয়েদের হাতেও উঠতে যাচ্ছে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা! গ্রুপপর্বে ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ এমন স্বপ্ন দেখতে সাহস জুগিয়েছিল বাংলাদেশের মানুষকে।

কিন্তু ফাইনালে স্বপ্নের রঙ-তুলির শেষ আঁচড়টি দিতে পারেনি বাংলাদেশের মেয়েরা। অভিজ্ঞতায় পরিপূর্ণ ভারতের মেয়েদের সঙ্গে কুলিয়ে উঠতে পারেনি সাবিনা-স্বপ্নারা। মূলত অভিজ্ঞতার কাছেই হেরেছে বাংলাদেশ।

এ নিয়ে টানা চারবার ফাইনাল খেলা ভারতের মেয়েদের সঙ্গে প্রথমার্ধে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই করেছে বাংলাদেশ। ১১ মিনিটে ভারত প্রথম গোল করে ম্যাচে এগিয়ে যায়। গোলটি করেন দাঙ্গেমি। ৩৮ মিনিটে বাংলাদেশের সিরাত জাহান স্বপ্নার দারুণ গোলে ম্যাচে সমতায় ফেরে বাংলাদেশ। সমতা নিয়েই শেষ হয় প্রথমার্ধের লড়াই।

দ্বিতীয়ার্ধে কৌশল বদলে খেলতে নামে ভারত। আর সেই কৌশলে ধরাশায়ী হয় বাংলাদেশ। ম্যাচের ৬১ মিনিটে পেনাল্টি পায় স্বাগতিকরা। পেনাল্টি থেকে গোল করে দলকে এগিয়ে নেন সুস্মিতা (২-১)। আর ৬৬ মিনিটে ইন্দুমতির গোলে ব্যবধান হয় ৩-১। বাকি সময়ে এই গোল আর শোধ দিতে পারেনি বাংলাদেশ। ফলে রানার্স-আপ হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয় বাংলাদেশের মেয়েদের।

এর ফলে মহিলা সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের টানা চতুর্থ শিরোপা ভারতের শোকেসে উঠল। অন্যদিকে অধরাই থাকল বাংলাদেশের শিরোপার স্বপ্ন। হয়তো অদূর ভবিষ্যতে বাংলাদেশের মেয়েদের হাতেই শোভা পাবে সপ্নের শিরোপা। শিরোপা শূন্যে উঁচিয়ে ধরার পাশাপাশি বাংলাদেশের ফুটবলকেও উঁচুতে নিয়ে যাবে সাবিনা-স্বপ্নারা। সেই স্বপ্নে বুক বাঁধতেই পারে ফুটবলপাগল মানুষেরা।

উল্লেখ্য, সাফে বাংলাদেশ দলকে পৃষ্ঠপোষকতা করেছে ক্রীড়াবান্ধব প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন গ্রুপ।

-রাইজিংবিডি

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like