খাদিজাকে নিয়ে আদালতের বাইরে বদরুলের বিষোদ্গার

রোববার সিলেটের আদালতে নেওয়ার সময় খাদিজাকে ‘বিশ্বাসঘাতক, বেইমান, মোনাফিক, প্রতারক’ আখ্যায়িত করে বদরুল সাংবাদিকদের বলেন, “খাদিজার মঙ্গল হোক, আমার ফাঁসি হোক।”

এদিন দুপুরে সিলেটের মুখ্য মহানগর হাকিম সাইফুজ্জামান হিরোর আদালতে ১৫ জনের সাক্ষ‌্যগ্রহণ হয় বলে অতিরিক্ত পিপি মাহফুজুর রহমান জানান।

এ নিয়ে দুই দিনে মোট ৩২ জনের বক্তব‌্য শুনল আদালত। গত ৫ ডিসেম্বর এ মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শুরুর দিন ১৭ জন তাদের জবানবন্দি উপস্থাপন করেন।

পিপি মাহফুজুর জানান, ১৬৪ ধারায় বদরুলের জবানবন্দি গ্রহণকারী বিচারক উম্মে সরাবন তহুরার সাক্ষ‌্যগ্রহণের মধ‌্য দিয়ে রোববার এ মামলার দ্বিতীয় দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়।

বেলা আড়াইটা পর্যন্ত তদন্ত কর্মকর্তা হারুনুর রশিদ, খাদিজার বাবা মাসুক মিয়া,  শাহপরাণ থানার ওসি শাহজালাল মুন্সী, ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক আতিকুল হায়দার, খাদিজাকে উদ্ধারকারী পুলিশসদস্যসহ ১৫ জন সাক্ষ্য দেন।

আগামী ১৫ ডিসেম্বর সাক্ষ্যগ্রহণের পরবর্তী দিন রাখা হয়েছে বলে জানান পিপি।

গত ৩ অক্টোবর সিলেটের এমসি কলেজ কেন্দ্রে স্নাতক পরীক্ষা দিয়ে বের হয়েই হামলার শিকার হন সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের স্নাতক (পাস কোর্স) দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী খাদিজা।

তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে বদরুলের কোপানোর ভিডিও ফেইসবুকে ছড়িয়ে পড়লে সারা দেশে তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়। ঘটনাস্থল থেকেই বদরুলকে ধরে পুলিশে দেয় জনতা।

ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে তিন দফা অস্ত্রোপচারের পর অনেকটা সুস্থ হন মাথায় আঘাত পাওয়া খাদিজা। শরীরের বাঁ পাশ স্বাভাবিক সাড়া না দেওয়ায় চিকিৎসার জন্য তাকে পাঠানো হয় সাভারের সিআরপিতে।

খাদিজার ওপর হামলাকারী বদরুল শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যাছলয়ের অর্থনীতি বিভাগের শেষ বর্ষের ছাত্র ও বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক ছিলেন।

ঘটনার পরদিন খাদিজার চাচা আব্দুল কুদ্দুস বাদী হয়ে শাহপরাণ থানায় হত‌্যাচেষ্টার মামলা করেন। বদরুলকে বিশ্ববিদ্যালয় ও সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়।

মামলার তদন্তে নেমে খাদিজাকে কোপানোর ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করে পুলিশ। বদরুল নিজেও অপরাধ স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শাহ পরান থানার এসআই হারুনুর রশিদ ৮ নভেম্বর আদালতে বদরুলের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেন। সেখানে ৩৭ জনকে সাক্ষী করা হয়।

গত ২৯ নভেম্বর ছাত্রলীগ নেতা বদরুল আলমের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে এ মামলার বিচার শুরু করে আদালত।

-বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like