গারো তরুণী ধর্ষণ: প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল তুহিন মোহাম্মদ মাসুদ জানান, রুবেলকে শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে বিমান বন্দর রেল স্টেশন এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার রুবেল উত্তর বাড্ডার মিশ্রীটেলা এলাকার মফিজ উদ্দিন ওরফে মফু মিয়ার ছেলে।

তার বিরুদ্ধে ধর্ষণ, চাঁদাবাজি, ডাকাতির প্রস্তুতি, মাদকদ্রব্য ও সন্ত্রাসী ঘটনায় বাড্ডা থানায় আটটি এবং রামপুরা থানায় অস্ত্র আইনের একটি মামলা আছে বলে র‌্যাব-১ এর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

এর মধ্যে একটি মামলায় সাজাপ্রাপ্ত আসামি রুবেলের বিরুদ্ধে আরও কয়েকটি মামলায় পরোয়ানাও রয়েছে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

গত ২৫ অক্টোবর গারো তরুণীকে ধর্ষণের ঘটনার পর ২৮ অক্টোবর বাড্ডা থানায় মামলা হয়েছিল। ওইদিন রাতেই পুলিশ সালাউদ্দিন মিনা নামে রুবেলের এক সহযোগীকে গ্রেপ্তার করে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে।

মামলার অভিযোগে করা হয়েছে, ঘটনার দিন বাড্ডার পুরাতন থানা রোডের ৬ নম্বর লেনের একটি বাসার সামনে থেকে প্রায় ১৮ বছর বয়সী ওই তরুণীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ করা হয়।

মামলা দায়েরের পর ওই তরুণীর বরাত দিয়ে বাড্ডা থানার এসআই ফারুক আলম জানিয়েছিলেন, ঘটনার দিন বিকালে ওই বাসায় তরুণীটি রিপন নামে তার এক বন্ধুর সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন।

রিপনসহ পাঁচ ছয়জন গারো ব্যাচেলার ওই বাসায় থাকেন। রিপনের সঙ্গে দেখা করে তরুণী আগে বের হন, রিপন বের হন একটু পরে।

এসআই ফারুকের ভাষ্য, ওই বাসার সামনেই রুবেল দাঁড়ানো ছিলেন। তরুণী বের হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে রুবেল তাকে ভয় দেখিয়ে পাশে একটি বস্তি ঘরে নিয়ে সবাইকে বের করে দিয়ে তাকে ধর্ষণ করেন।

তরুণীকে নিয়ে যাওয়ার সময় রিপন বাধা দিলে রুবেল তাকে ভয়ও দেখান।

গতবছর ২১ মে কুড়িল-বিশ্বরোডে এক গারো তরুণীকে মাইক্রোবাসে তুলে দলবেঁধে ধর্ষণ করা হয়। ওই ঘটনার মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে আছেন মাইক্রোচালকসহ দুইজন।

-বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like