চাঁদের জমিদার ডেনিস হোপ !

69824-mon

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:  ডেনিস হোপ। চাঁদের জমিদার। হ্যাঁ, ঠিক শুনেছেন চাঁদের সব জমির মালিক। ৬৬ বছরের প্রাক্তন গাড়ির সেলম্যান এই ব্যক্তিটির দাবি চাঁদের আসল মালিক তিনিই। ২০০৪ সাল থেকে তিনি চাঁদের সিংহাসন দখলের গণভোটে জিতে আসছেন। এসব কথাগুলো শুনে চমকে যাচ্ছেন? দীর্ঘদিন ধরে চাঁদের জমির দখলদারি নিয়ে নানা জায়গায় মামলা করা হোপ কিন্তু বলেন, অবাক হওয়ার কিছু নেই। চাঁদের আসল মালিকানার দলিল তাঁর কাছেই আছে। তবে সেই দলিল কে তৈরি করল, সেটার জবাব দেন না।

হোপের আরও দাবি জাতিসংঘ চাঁদকে কোনও রাষ্ট্রের দখল দিতে অস্বীকার করেছে। কিন্তু কোনও ব্যক্তির দখলদারিতে বাধা দেয়নি। তা ছাড়া তিনি নাকি আদালতের রায় খতিয়ে দেখেছেন। সেসব রায়ে নাকি বলা আছে পৃথিবীর বুকে যদি মালিকানা প্রতিষ্ঠা করা যায়, তাহলে চাঁদের মালিকানা দাবি করাও নাকি অযৌক্তিক নয়। হোপের দাবি, গোটা চাঁদের সব জায়গার ভূচিত্র তাঁর কাছে রয়েছে। আর সেটা নিয়েই হোপ নেমে পড়েছেন চাঁদের জমি বিক্রি করতে। প্লট ভাগ করে চাঁদের জমি অনলাইনে বিক্রি করেছেন।

দাম কত? তা চাঁদের জমি বেশ সস্তা। এক একর জমির দাম পড়ছে মাত্র ১৯.৯৯ ডলার আর মঙ্গলের ক্ষেত্রে সেটা ২২.৪৯ ডলার! সাথে অবশ্য ট্যাক্স, শিপিং, হ্যান্ডলিং খরচও আছে। হোপ দাবি করছেন তার প্রতিষ্ঠান ‘লুনার এম্বেসি কর্পোরেশান’- এর মাধ্যমে চাঁদের প্লট বিক্রি হয়। এর মধ্যেই চাঁদের ৭.৫ অংশ জমি বিক্রি হয়ে গিয়েছে। টম ক্রুজ থেকে টম হ্যাঙ্কস হলিউডের বেশ কয়েকজন তাবড় তারকা সহ ৬০ লক্ষ মানুষ চাঁদে জমি কিনে ফেলেছেন। অন্তত এমনটাই দাবি হোপের।

তবে অনেকেই এসব হোপের পাগলামি বলে উড়িয়ে দেন। যাক এখন, এই গানটা গেয়ে ফেলে যাক…ও চাঁদ, সামলে রেখো জোছনাকে। না হলে কেউ তোমার জোছনাকেও হয়তো বেচে দেবে। পৃথিবীতে বেচুবাবুর অভাব নেই।

-জি নিউস

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like