জেলা পরিষদ নির্বাচন বিধি মন্ত্রণালয়ে

ec-office

নিউজ ডেস্ক: জেলা পরিষদে চেয়ারম্যান ও সদস্য পদে ভোটের জন্য নির্বাচন বিধি ও আচরণবিধি ভেটিংয়ের জন্য আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে।

নির্বাচন কমিশন সচিব মুহাম্মদ আবদুল্লাহ বলেন, “এখন মন্ত্রণালয় খসড়া বিধি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে মতামত দেবে। অনুমোদন পেয়ে মন্ত্রণালয় থেকে আসার পর ইসি পর্যালোচনা করে তা গেজেট আকারে প্রকাশ করবে।”

মন্ত্রণালয়ের ঠিক করা ২৮ ডিসেম্বর ভোটের তারিখ রেখে এ নির্বাচনের তফসিল দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

ইসির উপ সচিব ফরহাদ আহাম্মদ খান জানান, নির্বাচন বিধি ও আচরণবিধির খসড়া রোববার কমিশনের অনুমোদন পাওয়ার পর তা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়। এখন ভোট সামনে রেখে ভোটার তালিকা প্রস্তুত, কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণসহ প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি রেখে কর্ম পরিকল্পনা তৈরি করা হচ্ছে।

কর্মকর্তারা জানান, বিধিমালা গেজেট আকারে প্রকাশের পর কমিশন বৈঠক করে নভেম্বরের প্রথমার্ধে তফসিল ঘোষণা করবে। মনোনয়ন দাখিলের সম্ভাব্য শেষ সময় ৩ ডিসেম্বর, প্রত্যাহারের শেষ সময় ১২ ডিসেম্বর এবং ১৩ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দের দিন রেখে প্রাথমিক কর্মপরিকল্পনা সাজানো হচ্ছে।

আইন অনুযায়ী, প্রতিটি জেলায় স্থানীয় সরকারের জনপ্রতিনিধিদের ভোটেই জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সদস্য নির্বাচিত হবেন। প্রতিটি জেলায় ১৫ জন সাধারণ ও পাঁচজন সংরক্ষিত মহিলা সদস্য থাকবেন।

সংসদ, সিটি করপোরেশন, উপজেলা, পৌরসভা, ইউনিয়ন পরিষদে জনগণের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচন হলেও জেলা পরিষদ আইনে প্রত্যক্ষ ভোটের বিধান নেই।

পাঁচ বছর মেয়াদী জেলা পরিষদগুলোতে বর্তমানে অনির্বাচিত প্রশাসক দায়িত্ব পালন করছেন। ২০১১ সালের ১৫ ডিসেম্বর ৬১ জেলায় আওয়ামী লীগের জেলা পর্যায়ের নেতাদের প্রশাসক নিয়োগ দেয় সরকার। তাদের মেয়াদপূর্তিতে এবারই প্রথম জেলা পরিষদে নির্বাচন হবে।

পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হবেন পরোক্ষ ভোটে। জেলায় অন্তর্ভুক্ত সিটি করপোরেশন (যদি থাকে), উপজেলা, পৌরসভা, ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের ভোটে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হবেন।

১৯৮৯ সালে তিন পার্বত্য জেলায় একবারই সরাসরি নির্বাচন হয়েছিল। আর কোনো জেলা পরিষদ নির্বাচন হয়নি।

১৯৮৮ সালে এইচ এম এরশাদের সরকার প্রণীত স্থানীয় সরকার (জেলা পরিষদ) আইনে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানকে সরকার কর্তৃক নিয়োগ দেওয়ার বিধান ছিল; পরে আইনটি অকার্যকর হয়ে পড়ে। ২০০০ সালে তৎকালীন আওয়ামী লীগ সরকার নির্বাচিত জেলা পরিষদ গঠনের জন্য নতুন আইন করে।

– বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like