দুই ছাত্রলীগ নেতাকে বহিষ্কার ‘অ‌্যাকশনের’ প্রমাণ: ওবায়দুল কাদের

obaidulquaderরাজনীতি ডেস্ক: অস্ত্র প্রদর্শনকারী দুই ছাত্রলীগ নেতাকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার দলে শৃঙ্খলা আনতে কঠোর হওয়ার নজির হিসেবে তুলে ধরেছেন আওয়ামী লীগের নতুন সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

সোমবার ঢাকায় এক অনুষ্ঠানে তিনি ছাত্রলীগের পদক্ষেপ তুলে ধরে বলেন, “ইতোমধ্যে এর প্রমাণ কিছুটা পেয়ে গেছেন। সম্মেলনের পর এটাই প্রথম অ‌্যাকশন, অপেক্ষা করুন।”

ঢাকার গুলিস্তানে চার দিন আগে ফুটপাতের হকারদের উচ্ছেদের সময় সংঘর্ষের মধ‌্যে দুই ছাত্রলীগ নেতার হাতে আগ্নেয়াস্ত্র দেখা যাওয়ার পর সমালোচনার মধ‌্যে সোমবার তাদের বহিষ্কার করে আওয়ামী লীগের ছাত্র সংগঠনটি।

ওই দুইজন হলেন- ঢাকা মহানগর (দক্ষিণ) ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. সাব্বির হোসেন এবং ওয়ারী থানা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আশিকুর রহমান।

মোহাম্মদপুরের সূচনা কমিউনিটি সেন্টারে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের ওই সভায় সড়কমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, বহিষ্কৃত দুজনের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশ দিয়েছেন।

গত সপ্তাহে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ার পর ওবায়দুল কাদের বলেছিলেন, দলে শৃঙ্খলা ফেরানোই তার চ‌্যালেঞ্জ।

সভায় তিনি বলেন, “আমাদের দলের সভানেত্রী দিনরাত পরিশ্রম করে এত উন্নয়ন করেন। আজকে কিছু কিছু লোকের খারাপ আচরণের জন্য দল ও সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট হতে দেব না।

“যারা এত দিন শৃঙ্খলাবিরোধী কাজ করেছেন, আবার মাঝে মাঝে অপকর্ম করেন, দয়া করে সংশোধন হয়ে যান। সংশোধন না হলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।”

চার জাতীয় নেতাকে স্মরণ করতে ৩ নভেম্বরের কর্মসূচি সফল করতে এই সভা করে আওয়ামী লীগ।

আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার ষড়যন্ত্র হচ্ছে দাবি করে সাধারণ সম্পাদক কাদের বলেন, “বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়েছে, এখনও ষড়যন্ত্র বহমান। এখনও মাঝে মাঝে মনে হয়, একটি বুলেট বঙ্গবন্ধুকন্যার পিছু ছাড়ছে না।

“সে কারণে আমি নেতা-কর্মীদের অনুরোধ করব, আর ফুলের মালার দরকার নাই। সম্মেলনের মাধ্যমেই আমরা ফুল পেয়েছি। ফুল চাই না, কর্মীদের সাথে, জনগণের সাথে ভালো আচরণ করুন।”

পরিশ্রম ও ত‌্যাগের স্বীকৃতি পাওয়ার নজির হিসেবে নেতা-কর্মীদের সামনে নিজেকে তুলে ধরেন ওবায়দুল কাদের।

“সারা জীবন দলের জন্য কাজ করে যাচ্ছি, ২০০৯ সালে ক্ষমতায় আসার পর তিন বছর মন্ত্রিত্বও পাইনি। আমি মাথা গরম করিনি। নেত্রীকে ছেড়ে যাইনি। ধৈর্য ধরেছি।”

আওয়ামী লীগে কখনও ভাঙন দেখা দেবে না বলেও মন্তব‌্য করেন ছাত্রলীগে সভাপতিত্বের পর নানা পদ পেরিয়ে দলের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বে আসা কাদের।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like