পদের আশা করি নাই: সোহেল তাজ

sohel-tajরাজনীতি ডেস্ক: আওয়ামী লীগের কাউন্সিলের আগে সাবেক প্রতিমন্ত্রী সোহেল তাজ আওয়ামী লীগের কাউন্সিল সামনে রেখে তাকে নিয়ে গুঞ্জনের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন।

নিজের ফেইসবুকে তিনি লিখেছেন, দলের কাউন্সিলে তাকে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব দেওয়া হবে বলে যে খবর প্রকাশিত হয়েছে তা সঠিক নয়। তিনি রাজনীতিতে সক্রিয় নন বলে কোনো পদ পাওয়ার প্রত্যাশাও তার ছিল না।

সম্মেলন শেষ হওয়ার চার দিনের মাথায় বৃহস্পতিবার ফেইসবুকে তার প্রতি মানুষের ভালবাসায় কৃতজ্ঞতাও প্রকাশ করেন তিনি।

সোহেল লিখেছেন, “আপনাদের মন্তব্য এবং পত্র পত্রিকার কিছু সংবাদ পড়ে আর গণমাধ্যমের কিছু সংবাদ দেখে আমার কাছে মনে হয়েছে যে, অনেকের ধারণা বিগত আওয়ামী লীগ কাউন্সিলে আমাকে কোনো গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব দেওয়া হবে। এই বিষয়ে অনেক বিভ্রান্তিকর খবরও প্রকাশিত হয়েছে এবং এটাও প্রচারিত হয়েছে যে আমি দেশে ফিরেছি কাউন্সিলের কারণে।”

গত ২২-২৩ অক্টোবর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের ২০ কাউন্সিল সামনে রেখে প্রবাসী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী ও বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর তাজউদ্দীন আহমদের ছেলে সোহেল দলে ‘যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক’ পদ পাচ্ছেন বলে গণমাধ্যমে জল্পনা-কল্পনা হয়।

এর মধ্যে কাউন্সিল শুরুর দুদিন আগে তানজীম আহমদ সোহেল তাজকে দলের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের বাড়িতে দেখা গেলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ‌্যমেও ব‌্যাপক আলোচনা চলে।

এর মধ্যে সম্মেলন শেষে শেখ হাসিনাকে সভাপতি ও ওবায়দুল কাদেরকে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করা হয়। এছাড়া সভাপতিমণ্ডলীর ১৬টি এবং চার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকের সবকটিসহ সম্পাদকমণ্ডলীর ২২টি পদের নামও ঘোষণা করা হয়েছে।

এর মধ্যে সোহেল তাজ কোনো পদ পানননি। তবে সম্পাদকমণ্ডলীর সাতটি পদসহ নির্বাহী কমিটির সদস্যদের নাম ঘোষণা এখনো বাকি রয়েছে।

পদ পাওয়া নিয়ে জল্পনা-কল্পনা খণ্ডন করে সোহেল বলেন, “আমি স্পষ্ট ভাবে বলতে চাই যে এ সকল ধারণা সঠিক নয়। আমি কোনো পদ কারো কাছে চাই নাই এবং আশাও করি নাই। কারণ, বর্তমানে আমি রাজনীতিতে সক্রিয় নই।

“আমার প্রতি যে ভালবাসা এবং অনুভূতি আপনারা প্রকাশ করেছেন সে জন্য আমি অভিভুত এবং আপনাদের কাছে কৃতজ্ঞ। আপনাদের সকলের জন্য রইল আমার আন্তরিক শুভেছা।”

সোহেল তাজ চারদলীয় জোট সরকার আমলে রাজপথে আন্দোলনে সক্রিয় থেকে নজর কাড়েন। ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বরের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ জয়ী হয়ে সরকার গঠন করলে তাকে দেওয়া হয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব।

ওই বছরই মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করে সোহেল তাজ দেশের বাইরে চলে যান। পরে সংসদ সদস্য পদ থেকেও পদত্যাগ করেন তিনি। তার সংসদীয় এলাকা গাজীপুরের কাপাসিয়ার সাংসদ এখন বোন সিমিন হোসেন রিমি।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like