রামু কলেজে প্রবারণা উৎসব অনুষ্ঠিত

pic-prabarona-ramu-collge

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি, ২৭ অক্টোবর: মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম চেতনা অসাম্প্রদায়িকতা। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি আমাদের ঐতিহ্য। এ ঐতিহ্য হাজার বছরের। প্রত্যেক ধর্মে মানুষের মঙ্গলের কথা বলা হয়েছে। মঙ্গলদ্বীপ তারই বার্তা বহন করে।
বুধবার সকালে রামু কলেজ ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত প্রবারণা উৎসবের আলোচনায় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহা. শাজাহান আলি এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, একে অপরের প্রতি হিংসা মানুষকে আরো বেশী হিংসাত্বক করে তুলে। সাম্প্রদায়িক বিভাজন ও হিংসা-বিদ্বেষ ভুলে গিয়ে সুদৃঢ় মানবিক মূল্যবোধ সম্পন্ন সমাজ বিনির্মাণে শিক্ষার্থীদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে।
রামু কলেজ প্রবারণা উৎসব উদযাপন পরিষদের আহ্বায়ক অধ্যাপক সুপ্রতিম বড়–য়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে পবিত্র ত্রিপিটক পাঠের মধ্য দিয়ে আশীর্বাদ প্রদান করেন উত্তর মিঠাছড়ি প্রজ্ঞামিত্র বনবিহারের অধ্যক্ষ সারমিত্র থের।
উদযাপন পরিষদের সমন্বয়ক অর্পন বড়–য়ার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, রামু কলেজের অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) মোহাম্মদ আবদুল হক, রামু থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) প্রভাষ চন্দ্র ধর, রামু বৌদ্ধ ঐক্য ও কল্যাণ পরিষদের সভাপতি প্রবীর বড়–য়া, রামু কলেজ গর্ভনিং বডির সদস্য তরুণ বড়–য়া, রামু উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক তপন মল্লিক, রামু শব্দায়ন আবৃত্তি উপ-কেন্দ্রের উপ-পরিচালক মানসী বড়–য়া। শিক্ষার্থীদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন- অনার্স তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী সঞ্জয় বিশ্বাস।
এতে রামু কলেজের অধ্যাপক জাফর আলম, প্রনতি দাশ গুপ্তা, প্রভাষক ইসমত জাহান দুলালী, আইসিটি বিভাগের প্রদর্শক ববিতা বড়–য়া, লাইব্রেরীয়ান ভূবন বড়–য়া, কবি তাপস মল্লিক, রামু উপজেলা ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জয় বড়–য়া, প্রবারণা উৎসব উদযাপন পরিষদের সদস্য সচিব অদিতি বড়–য়া, ছাত্রনেতা পার্থ নাথ দে, সত্যজিৎ বড়ুয়া, উত্তম কুমার, বাশু, সুজাতা প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।
আলোচনা সভার শুরুতে পবিত্র কুরআন তেলোয়াত করেন রামু কলেজের শিক্ষার্থী মো. আজিজুর রহমান, পবিত্র গীতা পাঠ করেন সুজন দে ও পবিত্র বাইবেল পাঠ করেন রুবেল নাথ।
পরে যথাযথ ধর্মীয় মর্যাদায় বিশ্বের সকল প্রাণীর সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনায় মঙ্গলদ্বীপ প্রজ্জ্বলন ও ফানুস উড্ডয়ন করা হয়। আলোচনা সভা শেষে কক্সবাজারের ব্যান্ডদল সাদাকালো’র পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।রামু কলেজে প্রবারণা উৎসব অনুষ্ঠিত
সংবাদ বিজ্ঞপ্তি, ২৭ অক্টোবর: মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম চেতনা অসাম্প্রদায়িকতা। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি আমাদের ঐতিহ্য। এ ঐতিহ্য হাজার বছরের। প্রত্যেক ধর্মে মানুষের মঙ্গলের কথা বলা হয়েছে। মঙ্গলদ্বীপ তারই বার্তা বহন করে।
বুধবার সকালে রামু কলেজ ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত প্রবারণা উৎসবের আলোচনায় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহা. শাজাহান আলি এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, একে অপরের প্রতি হিংসা মানুষকে আরো বেশী হিংসাত্বক করে তুলে। সাম্প্রদায়িক বিভাজন ও হিংসা-বিদ্বেষ ভুলে গিয়ে সুদৃঢ় মানবিক মূল্যবোধ সম্পন্ন সমাজ বিনির্মাণে শিক্ষার্থীদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে।
রামু কলেজ প্রবারণা উৎসব উদযাপন পরিষদের আহ্বায়ক অধ্যাপক সুপ্রতিম বড়–য়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে পবিত্র ত্রিপিটক পাঠের মধ্য দিয়ে আশীর্বাদ প্রদান করেন উত্তর মিঠাছড়ি প্রজ্ঞামিত্র বনবিহারের অধ্যক্ষ সারমিত্র থের।
উদযাপন পরিষদের সমন্বয়ক অর্পন বড়–য়ার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, রামু কলেজের অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) মোহাম্মদ আবদুল হক, রামু থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) প্রভাষ চন্দ্র ধর, রামু বৌদ্ধ ঐক্য ও কল্যাণ পরিষদের সভাপতি প্রবীর বড়–য়া, রামু কলেজ গর্ভনিং বডির সদস্য তরুণ বড়–য়া, রামু উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক তপন মল্লিক, রামু শব্দায়ন আবৃত্তি উপ-কেন্দ্রের উপ-পরিচালক মানসী বড়–য়া। শিক্ষার্থীদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন- অনার্স তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী সঞ্জয় বিশ্বাস।
এতে রামু কলেজের অধ্যাপক জাফর আলম, প্রনতি দাশ গুপ্তা, প্রভাষক ইসমত জাহান দুলালী, আইসিটি বিভাগের প্রদর্শক ববিতা বড়–য়া, লাইব্রেরীয়ান ভূবন বড়–য়া, কবি তাপস মল্লিক, রামু উপজেলা ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জয় বড়–য়া, প্রবারণা উৎসব উদযাপন পরিষদের সদস্য সচিব অদিতি বড়–য়া, ছাত্রনেতা পার্থ নাথ দে, সত্যজিৎ বড়ুয়া, উত্তম কুমার, বাশু, সুজাতা প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।
আলোচনা সভার শুরুতে পবিত্র কুরআন তেলোয়াত করেন রামু কলেজের শিক্ষার্থী মো. আজিজুর রহমান, পবিত্র গীতা পাঠ করেন সুজন দে ও পবিত্র বাইবেল পাঠ করেন রুবেল নাথ।
পরে যথাযথ ধর্মীয় মর্যাদায় বিশ্বের সকল প্রাণীর সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনায় মঙ্গলদ্বীপ প্রজ্জ্বলন ও ফানুস উড্ডয়ন করা হয়। আলোচনা সভা শেষে কক্সবাজারের ব্যান্ডদল সাদাকালো’র পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like