মাদক ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলনের আহ্বান রাষ্ট্রপতির

president-scout

নিউজ ডেস্ক: মাদক ও জঙ্গিবাদকে বৈশ্বিক সমস্যা উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এসবের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছেন।

মঙ্গলবার রাজধানীতে বাংলাদেশ স্কাউটসের জাতীয় কাউন্সিলের ৪৫তম বার্ষিক সাধারণ সভার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি বলেন, “মাদকের সর্বনাশা নেশা যুব সমাজকে বিপথগামী করছে। সৃষ্টি করছে সামাজিক অস্থিরতা। মাদকের পাশাপাশি জঙ্গিবাদ আজ বিশ্বব্যাপী সমস্যা।

“এ সবের বিরুদ্ধে আমাদের সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। সম্মিলিতভাবে সমাজ থেকে এদের সমূলে উৎপাটন করতে হবে। স্কাউটরা এক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে বলে আমার বিশ্বাস।”

স্কাউটের সেবাধর্মী কাজ আরও বিস্তৃত করার আহ্বান জানিয়ে রাষ্ট্রপতি বলেন, “মানবতার সেবায় স্কাউটরা নিবেদিতভাবে কাজ করে যাচ্ছে। যেকোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগে দুর্গত মানুষের পাশে থেকে সহযোগিতাসহ শীতার্ত মানুষের সেবায় স্কাউটদের কার্যক্রম সবার প্রশংসা অর্জন করেছে। বৃক্ষরোপণ, স্যানিটেশন, স্বাস্থ্য শিক্ষা, ইপিআই কর্মসূচি বাল্যবিবাহ রোধ ও পরিবেশ সচেতনতা বিষয়ে স্কাউটরা গ্রাম পর্যায়ে কাজ করে যাচ্ছে। আশা করি স্কাউটদের সেবাধর্মী কাজ আরও বিস্তৃত হবে। ”

স্কাউট আন্দোলনের গুণগত মান নিশ্চিত করার আহ্বান জানান চিফ স্কাউট আবদুল হামিদ।

তিনি বলেন, “বর্তমানে দেশে স্কাউটের সংখ্যা প্রায় ১৫ লাখ। মহান স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তিতে ২০২১ সালে দেশে স্কাউট সংখ্যা ২১ লাখে উন্নীত করার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। ছেলেদের পাশাপাশি মেয়েদেরকেও স্কাউটিংয়ে সমানভাবে সম্পৃক্ত করতে হবে।

“বর্তমানে দেশে ১ লাখ ৮০ হাজার গার্ল ইন স্কাউট সদস্য রয়েছে, যা ছেলেদের তুলনায় কম বলে আমি মনে করি। স্কাউট সংখ্যা বৃদ্ধির পাশাপাশি গুণগতমান নিশ্চিত করতে হবে।”

দেশে স্কাউট আন্দোলনকে জোরদার করতে সরকারের সহযোগিতার কথা তুলে ধরে রাষ্ট্রপতি জানান, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আওতায় ১২২ কোটি টাকা ব্যয়ে ‘বাংলাদেশ স্কাউটিং সম্প্রসারণ ও স্কাউট শতাব্দি ভবন নির্মাণ প্রকল্প’ অনুমোদিত হয়েছে।

তাছাড়া সরকারের প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে ‘প্রাথমিক বিদ্যালয়সমূহে বাংলাদেশ স্কাউটিং সম্প্রসারণ (৪র্থ পর্যায়)’ শিরোনামে একটি প্রকল্পের অনুমোদন প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানান রাষ্ট্রপতি।

ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি আটজনকে স্কাউটের সর্বোচ্চ পদক ‘রৌপ্য ব্যাঘ্র’ এবং ১৮ জনকে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পদক ‘রৌপ্য ইলিশ’ দেন।

বাংলাদেশ স্কাউটস সভাপতি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্যসচিব আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন স্কাউটসের প্রধান জাতীয় কমিশনার স্বরাষ্ট্র সচিব মো. মোজাম্মেল হক খান।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like