ধ্বংসের মুখে বিশ্বখ্যাত প্রবাল প্রাচীর

coral_reef

পরিবেশ ডেস্ক: পৃথিবীর অন্যতম ঐতিহ্য অস্ট্রেলিয়ার প্রবাল প্রাচীর এখন বিলুপ্ত হওয়ার পথে। সমুদ্রের তাপমাত্রা বৃদ্ধির কারণে ৩৫ শতাংশ প্রবালের মৃত্যু হয়েছে অস্ট্রেলিয়ায়। গত ৩০ বছরে একসঙ্গে এতো প্রবালের মৃত্যু হয়নি। তাপমাত্রার বৃদ্ধির ফলে একসঙ্গে একটি এলাকার সব প্রবাল ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে।

জেমস কুক বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা জানান, সমুদ্রের তাপমাত্রা বৃদ্ধির ফলে সামুদ্রিক বাস্তুতন্ত্রের ভারসাম্য বজায় থাকছে না। ক্রমাগত এই তাপমাত্রা বাড়তে থাকলে এভাবেই একটার পর একটা প্রজাতি ধ্বংস হয়ে যাবে। এই ধ্বংসের পরিণতি ভয়ংকর। কারণ প্রবাল প্রাচীরকে কেন্দ্র করে গোটা বাস্তুতন্ত্র গড়ে উঠেছে। ফলে এই প্রাচীর ধ্বংসের কারণে ক্রমাগত গোটা বাস্তুতন্ত্রই নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে। এতে ধ্বংস হয়ে যেতে পারে অস্ট্রেলিয়ার সামুদ্রিক প্রকৃতি।

সামুদ্রিক তাপমাত্রা বৃদ্ধি ছাড়াও সমুদ্রের দূষণ ও সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়ার সমুদ্রে এক নতুন প্রজাতির তারা মাছের আগমন এই পরিস্থিতিকে আরও জটিল করে তুলেছে। এই নতুন প্রজাতির তারা মাছ প্রবাল খায়। ফলে যখন তাপমাত্রা ও দূষণের কারণে প্রবাল প্রায় মৃত সেখানে এই নতুন প্রজাতির আগমনে অবস্থার অবনতি হচ্ছে।

অস্ট্রেলিয়ার দক্ষিণাঞ্চলে অবস্থিত একটি প্রবাল প্রাচীর এখনও অবশিষ্ট রয়েছে। টাইফুনের কারণে ওই অঞ্চলে সামুদ্রিক তাপমাত্রা বেশ খানিকটা কমে গিয়েছে। গবেষকরা চেষ্টা করছেন, এই অঞ্চলের প্রাচীরকেই সংরক্ষিত করে এই ঐতিহ্যবাহী প্রবাল প্রাচীরকে বিলুপ্তির হাত থেকে বাঁচাতে।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like