চকরিয়ায় প্রতিমা বিসর্জনে মাতামুহুরীর তীরে লাখো মানুষের ঢল

chakaria-pic-bijoya-11-10-16

এম মনছুর আলম, চকরিয়া, ১২ অক্টোবর: কক্সবাজারের চকরিয়ায় প্রতিমা বিসর্জনে মাতামুহুরী নদীর চিরিঙ্গা ব্রিজ পয়েন্টে মঙ্গলবার নদীর তীরে লাখো মানুষের ঢল নেমেছিল। বৃষ্টিপাত উপেক্ষা করে একের পর এক ম-প থেকে আসতে শুরু করে প্রতিমাসহ শত শত নারী-পুরুষ। একপর্যায়ে বিকেল সাড়ে তিনটা নাগাদ কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে আশপাশের খোলা জায়গা, ব্রিজের উপরে এবং নিচে, নদীর দুই তীরে হাজার হাজার মানুষের ঢল। এ যেন সত্যিই সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির মিলনমেলা। তবে বৃষ্টিপাত উপেক্ষা করে অতীতের চেয়ে বেশিসংখ্যক নারী-পুরুষ ভিড় করলেও প্রকৃতির বৈরী আচরণের কারণে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ থেকে বঞ্চিত হয়েছে এসব মানুষ। ব্যাপক প্রস্তুতি নেওয়ার পরও শেষপর্যন্ত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান বাদ দিয়ে আলোচনা সভা শুরু করতে হয়েছে চকরিয়া প্রতিমা বিসর্জন উদযাপন পরিষদকে।
চিরিঙ্গা হিন্দুপাড়া যুবকল্যাণ সমিতির সভাপতি ও দানবীর ধনরঞ্জন দাশের উদ্বোধনী বক্তব্যের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হয়। চকরিয়া প্রতিমা বিসর্জন উদযাপন পরিষদের আহবায়ক প্রদীপ কান্তি দাশের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব সুনীল বিহারী নাথের সঞ্চালনায় প্রতিমা বিসর্জন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন- চকরিয়া-পেকুয়া আসনের এমপি মোহাম্মদ ইলিয়াছ। প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন- চকরিয়া পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র আলমগীর চৌধুরী। অনুষ্ঠানে সম্বর্ধিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- দানবীর ও ধর্মানুরাগী ব্যক্তিত্ব রতন কুমার সুশীল। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- চকরিয়া পৌরসভা আওয়ামীলীগ নেতা ও পৌরসভার দুই নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রেজাউল করিম, তিন ওয়ার্ডের কাউন্সিলর বশিরুল আইয়ুব।
বক্তব্য রাখেন- হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান যুব পরিষদের সভাপতি সুধাংশু কুমার সুশীল, প্রতিমা বিসর্জন কমিটির অর্থসচিব নিখিল বসাক, ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব সুজিত দাশ, উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির নেতা উত্তম কুমার দাশ, ডা. সুমন দাশ।
উপস্থিত ছিলেন- চিরিঙ্গা হিন্দুপাড়ার সমাজসেবক হারাধন দাশ, সমীর দাশ, মাষ্টার মিলন দাশ, মিলন কান্তি দাশ, নিত্যানন্দ গীতা সংঘের সভাপতি শ্রীদুল রঞ্জন দাশ, কুমার দত্ত, চকরিয়া প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ছোটন কান্তি নাথ, পংকজ দাশ, সুধীর চন্দ্র দাশ, সমীর কান্তি দাশ প্রমূখ।
সূর্যাস্তের আগে পুরোহিত রাজীব চক্রবর্তীর মন্ত্রপাঠের মধ্য দিয়ে নদীতে সারিবদ্ধভাবে প্রতিমা বিসর্জন সম্পন্ন হয়।
প্রতিমা বিসর্জন উদযাপন কমিটির নেতারা জানান, এবারের প্রতিমা বিজর্সন অনুষ্ঠানে উপজেলার ১৪টি ম-প থেকে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে প্রতিমা নিয়ে আসা হয় মাতামুহুরী নদীর তীরে।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like