জয় দেশের সম্পদ, চাইলে দলেরও হবে: নাসিম

sajeebwajedjoy

২০১৪ সালের ২ জানুয়ারি পীরগঞ্জে শেখ হাসিনার পক্ষে ভোট চেয়ে নির্বাচনী জনসভায় সজীব ওয়াজেদ জয় (ফাইল ছবি)

রাজনীতি ডেস্ক: কাউন্সিলরা চাইলে প্রধানমন্ত্রীপুত্র সজীব ওয়াজেদ জয় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে আসতে পারেন বলে আভাস দিয়েছেন দলটির সভাপতিমণ্ডলীর সদস‌্য মোহাম্মদ নাসিম।

ক্ষমতাসীন দলটির আগামী সম্মেলনে কাউন্সিলর হওয়া এবং সম্মেলনের ‘ফোকাস’ তিনি বলে ওবায়দুল কাদেরের বক্তব‌্য আসার পর জয়কে নিয়ে রাজনৈতিক অঙ্গনে আলোচনা চলছে।

মঙ্গলবার আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর ধানমণ্ডির কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এলে এই বিষয়ে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করেন স্বাস্থ‌্যমন্ত্রী নাসিমকে।

উত্তরে তিনি বলেন, “সজীব ওয়াজেদ জয় আওয়ামী লীগেরর কেন্দ্রীয় কমিটিতে আসবেন কি না, সেই সিদ্ধান্ত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং দল নিবে।

“আমি মনে করি, জয় দেশের সম্পদ, দল যদি তাকে উপযুক্ত মর্যাদা দেয়, তাহলে তিনি দলের সম্পদ হবেন।”

সম্মেলনে রংপুর থেকে জয়কে কাউন্সিলর করার ‘দেশবাসী অনুপ্রাণিত’ হয়েছে বলে মন্তব‌্য করেন নাসিম।

৪৫ বছর বয়সী তথ‌্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ জয় মা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তথ‌্য প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টার দায়িত্ব পালন করছেন। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার ক্ষেত্রে তার অবদানই মুখ‌্য বলে আসছেন আওয়ামী লীগ নেতারা।

যুক্তরাষ্ট্রপ্রবাসী জয় কয়েক বছর আগে নানা ও মায়ের দল আওয়ামী লীগের সদস‌্যপদ নেন। পিতৃভূমি রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলা কমিটিতে গত বছর তাকে সদস‌্য হিসেবে রাখা হয়।

২০১৪ সালে মা শেখ হাসিনার জন‌্য নৌকা প্রতীকে ভোট চাইতে পীরগঞ্জে কয়েকটি জনসভায়ও অংশ নিয়েছিলেন তিনি।

এবার রংপুর জেলা কমিটি আগামী ২২-২৩ অক্টোবর অনুষ্ঠেয় ২০তম সম্মেলনে তাদের যে কাউন্সিলরের তালিকা পাঠিয়েছে, তাতে জয়ের নামও রয়েছে।

সম্মেলনের জন‌্য গঠিত অভ্যর্থনা উপ-পরিষদের আহ্বায়কের দায়িত্বে রয়েছেন নাসিম। মঙ্গলবার দুপুরে উপ-পরিষদের এক বৈঠকের আগে সংবাদ সম্মেলনে আসেন তিনি।

নাসিম বলেন, ২০১৯ সালে অনুষ্ঠিত নির্বাচনের আগে দলকে আরও সুসংগঠিত করার জন‌্য এবারের সম্মেলন অনেক ‘তাৎপর্যপূর্ণ’।

“এর মাধ্যমে আমাদের আগামী নির্বাচনের বিজয়ের পথ সুগম হবে,” বলেন টানা দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের এই নেতা।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like