শিক্ষক নিয়োগ: ১২ হাজার ৬১৯ জনের তালিকা প্রকাশ

thumbnailনিউজ ডেস্ক: বেসরকারি স্কুল-কলেজে শিক্ষক হিসেবে নিয়োগের জন‌্য কেন্দ্রীয়ভাবে নির্বাচিত ১২ হাজার ৬১৯ জনের তালিকা প্রকাশ করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ রোববার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এই তালিকা প্রকাশ করে বলেন, শিক্ষাক্ষেত্রে এটা ‘মাইলফলক’।

“খুবই কঠোর পরিশ্রম করতে হয়েছে, খুবই কঠিন কাজ। গোপনীয়ভাবে কাজটা করা হয়েছে। এখানে তদবির বা স্বজনপ্রীতির কোনো সুযোগ নাই।”

সাংবাদিকদের প্রশ্নে মন্ত্রী বলেন, “কারও কাছে টাকা চাওয়ার কোনো সুযোগ নেই। কেউ টাকা চাইলে সঙ্গে সঙ্গে আমাদের জানাবেন, ঘুষের অপরাধের জন্য আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ পাওয়ার জন্য নির্বাচিতদের ‘সম্মান রক্ষা করে চলার’ পরামর্শ দিয়ে নাহিদ বলেন, “এলাকাবাসীও সেভাবে তাকে গ্রহণ করবেন, সহযোগিতা করবেন।”

পরিচালনা পর্যদের ক্ষমতা খর্ব করে বেসরকারি স্কুল-কলেজে শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের মধ্য থেকে এবার কেন্দ্রীয়ভাবে বিষয়ভিত্তিক শিক্ষকের এই তালিকা ঠিক করে দিল বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, কেন্দ্রীয়ভাবে শিক্ষক নির্বাচন করে দিতে দেশের স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা, কারিগরি ও সমপর্যায়ের ছয় হাজার ৪৭০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ১৪ হাজার ৬৬৯টি শূন্যপদে শিক্ষক নিয়োগের চাহিদার তথ‌্য এনটিআরসিএ-তে এসেছিল।

প্রথম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ দুই লাখ ৪৯ হাজার ৫০২ জন প্রার্থী ওইসব পদে নিয়োগ পেতে গত ২০ জুলাই থেকে ১৬ অগাস্ট পর্যন্ত অনলাইনে আবেদন করেন।

একেকজন প্রার্থীর একাধিক প্রতিষ্ঠানে আবেদন করার সুযোগ থাকায় মোট আবেদনের সংখ্যা দাঁড়ায় ১৩ লাখ ৭৫ হাজার ১৮৭টি। গত ১৭ অগাস্ট থেকে ৬ অক্টোবর পর্যন্ত সফটওয়‌্যারের মাধ্যমে শূন্য পদের বিপরীতে প্রার্থী বাছাই করা হয়।

৭১৮টি পদের বিপরীতে কোনো আবেদন পাওয়া যায়নি জানিয়ে সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, ৬৮৫টি বাছাই স্থগিত রয়েছে। ২০৪টি মহিলা কোটা পদে কোনো আবেদন পাওয়া যায়নি।

সাড়ে ১৪ লাখ প্রার্থী শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ পেতে এনটিআরসিএতে আবেদন করেছিলেন। এদের মধ্য থেকে ১৫ হাজার প্রার্থীকে শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, প্রতিষ্ঠান প্রধান ও পরিচালনা পর্যদের সভাপতিকে এসএমএস করে ফল জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া নির্বাচিত প্রার্থীরা কোন স্কুল-কলেজে নিয়োগের জন্য নির্বাচিত হয়েছেন, তা তাদের এসএমএস করে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

মামলার কারণে স্থগিত থাকায় কম্পিটার বিষয়ের এক হাজার ৯৫টি পদের বিপরীতে কোনো প্রার্থী নির্বাচিত করা হয়নি।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like