মুক্তি পেলেন গুলশানের ‘জিম্মি’ তাহমিদ

৫৪ ধারার অভিযোগের মামলায় ঢাকার মহানগর হাকিম লস্কর সোহেল রানা রোববার তার জামিনের আবেদন মঞ্জুর করেন।

ফলে আফতাব বহুমুখী ফার্মের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফজলে রহিম খান শাহরিয়ারের কানাডায় পড়াশোনারত এই ছেলের মুক্তিতে আর কোনো বাধা নেই বলে তার আইনজীবীরা জানিয়েছিলেন।

জামিনের নথিপত্র আসার পর রাত ১১টার দিকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে তাহমিদকে ছেড়ে দেওয়া হয় বলে ঢাকার জ‌্যেষ্ঠ কারাধ‌্যক্ষ জাহাঙ্গীর কবির বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানিয়েছেন।

তবে তাহমিদের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে তথ‌্য গোপনের একটি অভিযোগ রয়েছে, যা তদন্তে পুলিশ আবেদন রয়েছে আদালতে।

ওই আবেদনের বিষয়ে আগামী ৫ অক্টোবর আদালত সিদ্ধান্ত জানাবে বলে আদালত পুলিশের কর্মকর্তা এসআই রনপ কুমার ভক্ত বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানিয়েছেন।

কমান্ডো অভিযানে জঙ্গিরা নিহত হওয়ার পর হলি আর্টিজান থেকে তাহমিদের সঙ্গে উদ্ধার নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ‌্যালয়ের সাবেক শিক্ষক হাসনাত রেজাউল করিমকেও গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

পরে রেজাউল করিমকে গুলশান হামলার মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হলেও ব‌্যবসায়ীপুত্র তাহমিদের কোনো সম্পৃক্ততা পাওয়া যায়নি বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

পুলিশ কর্মকর্তা রনপ বলেন, “তিনি (তাহমিদ) হলি আর্টিজান হত‌্যা মামলার আসামি নন। তাকে ওই মামলায় গ্রেপ্তারও দেখানো হয়নি।”

আলোড়ন তোলা এই জঙ্গি হামলার পর নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ‌্যালয়ের উপ-উপাচার্য গিয়াস উদ্দিনকেও সন্দেহভাজন হিসেবে গ্রেপ্তার করেছিল পুলিশ। পরে তাকেও পুলিশ অব‌্যাহতি দিয়েছিল, তিনিও জামিন পেয়েছেন।

গত ১ জুলাই রাতে হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গি হামলায় ১৭ বিদেশিসহ ২০ জিম্মি নিহত হওয়ার পর সকালে সেখান থেকে উদ্ধার ১৩ জনের মধ্যে ছিলেন তাহমিদ ও হাসনাত।

এ ঘটনায় উদ্ধারদের গোয়েন্দা পুলিশ কার্যালয়ে জিজ্ঞাসাবাদের পর পুলিশ সবাইকে ছেড়ে দেওয়ার কথা বললেও সে সময় তাহমিদ ও হাসনাত বাসায় ফেরেননি বলে তাদের পরিবার জানায়।

এরপর গত ৩ অগাস্ট এই দুজনকে সন্দেহভাজন হিসেবে ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তারের কথা জানায় পুলিশ।

জঙ্গিদের সঙ্গে তাহমিদের ছবি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ‌্যমে ব‌্যাপক আলোচনায় আসলেও তাহমিদকে ১৪ দিন জিজ্ঞাসাবাদের পর পুলিশ জানায়, গুলশান হামলার ঘটনায় তার কোনো সম্পৃক্ততার অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

কানাডার একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র তাহমিদ গুলশান হামলার একদিন আগে দেশে ফেরেন। ওই দিন ইফতারের পর বন্ধুদের সঙ্গে তিনি ওই ক্যাফেতে গিয়েছিলেন বলে পরিবারের ভাষ্য।

-বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like