সন্ধ্যা নদীতে লঞ্চ ডুবি: আরও ৩ লাশ উদ্ধার

barisal-photo05_ed

নিউজ ডেস্ক: বরিশালের বানারীপাড়ায় লঞ্চ ডুবির ঘটনায় নিখোঁজ আরও এক ফায়ার সার্ভিস কমীসহ তিনজনের লাশ উদ্ধার হয়েছে। এ নিয়ে বৃহস্পতিবার মোট পাঁচজনের লাশ উদ্ধার হয়েছে, যাতে এ ঘটনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৩ জনে।

বৃহস্পতিবার রাতে সন্ধ্যা নদীর বিভিন্ন এলাকা থেকে ওই তিনজনের লাশ উদ্ধার করা হয় বলে বানারীপাড়া থানার এসআই মো. মামুন জানান।

এরা হলেন, ফায়ার সার্ভিস কর্মী রুহুল আমীন (৩০), খুকুমনি (২৫) ও অজ্ঞাতপরিচয় এক বৃদ্ধ।

এদের মধ্যে রুহুল আমীন বানারীপাড়া উপজেলার সাতবাড়িয়া গ্রামের বাসিন্দা, খুকুমনি উপজেলার পূর্ব সৈয়দকাঠী গ্রামের বাসিন্দা মিলন ঘরামীর স্ত্রী।  দুর্ঘটনার দিনই মিলনের লাশ উদ্ধার হয়েছিল।

এসআই মামুন বলেন, সন্ধ্যা নদীর খেজুরবাড়ি এলাকা থেকে ফায়ার সার্ভিস কর্মী রুহুল আমীন ও খুকুমনি লাশ এবং চাউলাকান্দি কালিবাজার এলাকা থেকে অজ্ঞাতপরিচয় বৃদ্ধের লাশ পাওয়া যায়।

ফায়ার সার্ভিস কর্মী রুহুল আমীন ‘এমএল ঐশী’ লঞ্চের যাত্রী ছিলেন বলে জানান তিনি।

এর আগে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মারিয়া নামের এক শিশু ও গৃহবধূ হামিদার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

বুধবার দুপুরে বানারীপাড়া উপজেলার দাশেরহাটের মসজিদবাড়ি ঘাটে যাত্রী ওঠানোর সময় ‘এমএল ঐশী’ নামের লঞ্চটি ডুবে যায়। দিনভর তল্লাশি চালিয়ে প্রথম দিন ১৪ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়।

বৃহস্পতিবার সকালে লঞ্চটি টেনে তোলার পর উদ্ধার অভিযান সমাপ্ত ঘোষণা করা হয়।এ সময় আরও চারটি লাশের সন্ধান মেলে।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like