খুরুশকূলের ব্যবসায়ী নাছিরকে ষড়যন্ত্রমূলক অস্ত্র মামলায় ফাঁসানো হয়েছে দাবি পরিবারের

coxs3

বার্তা পরিবেশক, ১৯ সেপ্টেম্বর: কক্সবাজার সদরের খুরুশকূলের ব্যবসায়ী নাছির উদ্দিনের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক ও মিথ্যা অভিযোগে দায়ের অস্ত্র মামলা প্রত্যাহার এবং মুক্তির দাবি জানিয়েছে পরিবারের সদস্যরা।
রোববার (১৮ সেপ্টেম্বর) বিকালে কক্সবাজার শহরের আবাসিক এক হোটেলের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়েছে।
গত ৩১ আগষ্ট সন্ধ্যায় কক্সবাজার শহরের হোটেল-মোটেল জোন এলাকার কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের সামনে থেকে র‌্যাব-৭ কক্সবাজার ক্যাম্পের সদস্যরা একটি বিদেশী পিস্তলসহ মো. নাছির উদ্দিন নামের এক যুবককে আটক করে। পরে ওইদিন রাতে ঘটনায় আটক নাছিরকে একমাত্র আসামী করে কক্সবাজার সদর থানায় র‌্যাব বাদী হয়ে অস্ত্র আইনে মামলা দায়ের করে। এ ঘটনায় তিনি এখন জেল হাজতে রয়েছেন।
গ্রেপ্তার মো. নাছির উদ্দিন (৩৬) কক্সবাজার সদরের খুরুশকূল ইউনিয়নের লামাজি পাড়ার কাশেম উদ্দিনের ছেলে।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে নাছিরের স্ত্রী নুর নাহার বেগম বলেন, ষড়যন্ত্রমূলক ও মিথ্যা অভিযোগে আটকের দিন থানা হাজতে আমার স্বামীর সঙ্গে ঘটনার ব্যাপারে বিস্তারিত কথা হয়েছে। র‌্যাবের অভিযানে উদ্ধার হওয়া অস্ত্র তার নয় বলে আমাকে জানিয়েছেন।
তিনি বলেন, ঘটনার দিন সন্ধ্যায় স্থানীয় খুরুশকূল বাজারে অবস্থিত সোহাগ বেকারীর মালিক মো. শফি এক আত্মীয় কক্সবাজার বেড়াতে এসেছে এবং তার সঙ্গে কাউন্টারে পরিচয় করিয়ে দেবার কথা বলে আমার স্বামীকে কক্সবাজার শহরে আসার জন্য বলেন। তার কথায় আমার স্বামী নাছির এলাকার বন্ধু সাহাব উদ্দিনকে সঙ্গে নিয়ে কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের সামনে আসেন। তারা সেখানে উপস্থিত হওয়ার কয়েক মিনিট পর র‌্যাবের একটি দল আসে। পরে আমার স্বামীকে র‌্যাব সদস্যরা আটক করে নিয়ে যায়। এসময় অভিযানস্থলে সাহাব উদ্দিন উপস্থিত থাকলেও র‌্যাব সদস্যরা তাকে আটক না করে পালিয়ে যাওয়ার সুযোগ করে দেয়। পরে আমার স্বামীর কাছ থেকে র‌্যাব কর্তৃক বিদেশী পিস্তল উদ্ধার করা হয়েছে দাবি করে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে ফাঁসানো হয়েছে।
এলাকার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের লোকজন ষড়যন্ত্রমূলকভাবে আমার স্বামীকে ফাঁসিয়েছে দাবি করে নূর নাহার বলেন, বিগত ইউপি নির্বাচনে আমার স্বামী নৌকা প্রতিকের পক্ষে কাজ করেছেন। পরাজিত পক্ষের লোকজন তখন থেকে আমার স্বামীর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছেন। আমি ষড়যন্ত্রের শিকার স্বামী নাছিরের মামলা প্রত্যাহার এবং মুক্তির দাবি জানাচ্ছি।
সংবাদ সম্মেলনে গ্রেপ্তার নাছিরের মা বলেন, আমার ছেলেকে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে অস্ত্র মামলায় ফাঁসানো হয়েছে। নাছিরকে আটকের পর থেকে প্রথম ও তৃতীয় শ্রেণী পড়ুয়া ২ মেয়ে বাবার চিন্তায় স্কুলে যাওয়া-আসাও ছেড়ে দিয়েছে।
সংবাদ সম্মেলনে নাছিরের মা ও স্ত্রী ছাড়াও ২ মেয়ে উপস্থিত ছিল।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like