জেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে ইসি

downloadজাতীয় ডেস্ক : আগামী ডিসেম্বরে জেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে প্রস্তুতি গুছিয়ে নিচ্ছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এজন্য নির্বাচন পরিচালনা বিধিমালা ও আচরণ বিধিমালা প্রণয়নে ব্যস্ত রয়েছে সংস্থাটি।

ইসি’র উপ-সচিব ফরহাদ আহাম্মদ খান জানান, বিধিমালা প্রস্তুতের কাজ খুব শিগগিরই শেষ হবে। ঈদের পরপরই চূড়ান্ত করা হবে। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ডিসেম্বরেই এ নির্বাচন করা হবে।

ইসি’র নির্বাচন ব্যবস্থাপনা শাখার বিশ্বস্ত সূত্রগুলো জানিয়েছে, ডিসেম্বরের শেষভাগেই এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। বর্তমানে বিভিন্ন বিধান প্রণয়ণের সঙ্গে সঙ্গে মনোনয়ন ফরম কেমন হবে, তা নিয়েই আলোচনা হচ্ছে। সেপ্টেম্বরের মধ্যেই হয়তো বিধিমালা প্রণয়নের কাজ শেষ হয়ে যাবে।

স্থানীয় সরকার নির্বাচনগুলোর মধ্যে জেলা পরিষদই ব্যতিক্রম। এক্ষেত্রে সরাসরি ভোটাররা ভোট দিয়ে প্রতিনিধি নির্বাচন করবেন না। এক্ষেত্রে একটি জেলার অধীনে যতোগুলো স্থানীয় সরকার রয়েছে, সেগুলোর সদস্যরাই হবেন ভোটার। অর্থাৎ উপজেলা, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, মেয়র এবং কাউন্সিলররা ভোট দিয়ে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, ১৫ জন সদস্য ও ৫ জন সংরক্ষিত সদস্য নির্বাচিত করবেন।

ইসি’র কর্মকর্তা বলছেন, একটি জেলায় একাধিক সংসদীয় আসন থাকে। সেক্ষেত্রে সরাসরি ভোটারদের ভোটে এ পরিষদ নির্বাচন করাটা খুব কষ্টসাধ্য হয়ে পড়বে। কেননা, এতো ভোটারের ভোটদান শেষে তা গণনা করা এবং ফলাফল প্রকাশ করতে অনেক সময়ের প্রয়োজন হবে। তাই ইলেকটোরাল কলেজের মতো নির্বাচন করার বিধান রাখা হয়েছে।

২০০০ সালে তৎকালীন আওয়ামী লীগ সরকার নতুন করে জেলা পরিষদ আইন প্রণয়ন করে। এরপর জোট সরকারের আমলে এ নিয়ে কোনো উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। পরবর্তীতে ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ পুনরায় ক্ষমতায় আসার পর ২০১১ সালে প্রশাসক নিয়োগ দিয়ে জেলা পরিষদ পরিচালনা করছে। সম্প্রতি সরকার ঘোষণা দিয়েছে, ডিসেম্বরে এ স্থানীয় সরকারের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

  • বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like