চকরিয়ায় তিন বসত বাড়িতে ডাকাতি : আহত ৫

Chakaria Pic. (2) 27.08.16

                                                                                                  আহত ছেনোয়ারা বেগম

চকরিয়া প্রতিনিধি, ২৮ অক্টোবর: চকরিয়া উপজেলার বিএমচর ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের পাহাড়িয়া পাড়ার তিনটি বসতবাড়িতে ডাকাতি সংঘটিত করেছেন সশস্ত্র ডাকাতদল। এ সময় ডাকাতেরা বাড়ির দরজা ভেঙ্গে ভেতরে ঢুকে পরিবার সদস্যদের অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে লুটে নেয় নগদ টাকা, স্বর্ণালঙ্কার, মূল্যবান মালামালসহ প্রায় ৫ লক্ষ টাকার মালামাল। এ সময় ডাকাতের পিটুনিতে আহত হয় তিন বাড়ির অন্তত ৫ জন। তন্মধ্যে ছুরিকাঘাতে আহত এক গৃহকত্রীকে চকরিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। শনিবার দিবাপূর্ব রাত দেড়াটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে মাতামুহুরী তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

আহতদের মধ্যে তিনজনের নাম পাওয়া গেছে। তারা হলেন পাহাড়িয়া পাড়ার মাষ্টার নুরুল হোসাইনের (ইলিশিয়া জমিলা বেগম উচ্চ বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত সাবেক প্রধান শিক্ষক ও বর্তমান চকরিয়া বর্ণমালা একাডেমীর অধ্যক্ষ) স্ত্রী ছেনোয়ারা বেগম (৫০), মো. শামশুল আলম (৫৫) ও তার পুত্র মোহাম্মদ রাসেল (১৬)।

ডাকাত কবলিত পরিবারগুলো জানায়, ১২ সদস্যের একদল মুখোশ পরিহিত ডাকাত মাষ্টার নুরুল হোছাইন, শামশুল আলম ও আবু তাহেরের বাড়িতে হানা দেয়। এ সময় দুটি বাড়ির দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে পরিবার সদস্যদের অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে রাখে। তাদের বাঁধা দেওয়ার চেষ্টা করায় এলোপাতাড়ি পিটুনি শুরু করে। এ সময় তার কাছ থেকে আলমারীর চাবি খুঁজলে না দেওয়ায় ছুরিকাঘাত করে। পরে চাবি নিয়ে লুট করে নেয় ৭ ভরি স্বর্ণালঙ্কার, নগদ ২৫ হাজার টাকাসহ অন্তত চার লক্ষ টাকার মালামাল। একইভাবে আবু তাহেরের বাড়ি থেকেও নগদ ৫০ হাজার টাকা এবং কয়েকভরি সোনা লুট করে নেয় ডাকাতদল। শামশুল আলমের বাড়ির দরজা ভাঙতে না পেরে পরিবার সদস্যদের বাইরে থেকে তালাবদ্ধ করে রাখে। এ সময় বাড়িটিতে ব্যাপক ভাংচুর চালায় ডাকাতেরা। প্রায় আধঘন্টা ধরে ডাকাতি শেষে পালিয়ে যায় ডাকাতদল।

চকরিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. কামরুল আজম বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like