গুলশানে হামলা: রিমান্ড শেষে কারাগারে তাহমিদ

tahamid hasib

নিউজ ডেস্ক: রাজধানীর গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গি হামলার ঘটনায় ব্রিটেনের টরেন্টো বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী তাহমিদ হাসিব খানকে রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

শনিবার ঢাকা মহানগর হাকিম দেলোয়ার হোসেন জামিন নামঞ্জুর করে তাহমিদকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

দুই দফায় ১৪ দিনের রিমান্ড শেষে শনিবার দুপুরে তাহমিদকে আদালতে হাজির করেন ঢাকা মহানগর কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের সহকারী পুলিশ কমিশনার শহিদুর রহমান। মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তিনি তাহমিদকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন।

অপরদিকে, তাহমিদের আইনজীবী হামিদুর রহমান (মামুন) তাকে জামিনের আবেদন করেন। জামিন শুনানিতে তিনি বলেন, গুলশান হামলার ঘটনায় তাহমিদকে ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে দুই দফায় ১৪ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। তাকে রিমান্ডে নিয়ে কোনো তথ্য উপাত্ত উদ্ধার করতে পারেনি। ওই হামলার সঙ্গে তিনি সম্পৃক্ত নন। তিনি পরিস্থিতির শিকার। তিনি মৃগী রোগেও আক্রান্ত। তাকে জামিন দিলে তিনি পালিয়ে যাবেন না।

উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। এরআগে গত ৪ আগস্ট তাহমিদের ৮ দিন এবং ১৩ আগস্ট ৬ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

ওই ঘটনায় নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের তৎকালীন শিক্ষক হাসনাত রেজা করিম গুলশান হামলার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় ৮ দিনের রিমান্ডে রয়েছেন। গত ১৩ আগস্ট তার ৮ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। এরআগে গত ৪ আগস্ট ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে ৮ দিনের রিমান্ডে নেয় পুলিশ।

হাসনাতের দেওয়া তথ্যমতে গত ৩ আগস্ট সন্ধ্যায় বসুন্ধরার আবাসিক এলাকার জি-ব্লক হতে কানাডার টরোন্টো বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র তাহমিদ হাসিব খানকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

তাহমিদ হাসিব খান আফতাব বহুমুখী ফার্মের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফজলে রহিম খান শাহরিয়ারের ছেলে। তিনি কানাডার স্থায়ী নাগরিক। ১ জুলাই গুলশান হামলার দিনই দুপুরে ঢাকায় আসেন তাহমিদ।

ওই ঘটনার মামলায় ১১ জন আদালতে সাক্ষী হিসেবে জবানবন্দি দিয়েছেন। এরা হলেন হলি আর্টিজান বেকারির ক্যাশিয়ার আল-আমিন চৌধুরী সিজান, ওই রেস্তোরাঁর স্টাফ মিরাজ হোসেন, রাসেল মাসুদ, মেট্রোরেল প্রকল্পের ড্রাইভার বাসেদ সরদার, ওই রেস্তোরাঁয় খেতে আসা ভারতের নাগরিক সত্য প্রকাশ, ওই রেস্তোরাঁর বাবুর্চি মো. শাহিন, শাহরিয়ার, তুহিন, শিশির, ফায়রুজ মালিহা এবং তাহানা তাসমিয়া।

-রাইজিংবিডি

 

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like