টানা তিন বছর ধরে ঘাটতিতে বিএনপি

BNP-logo_banglanews2420160816133431রাজনীতি ডেস্ক : টানা তিন বছর  থেকে ঘাটতি পূরণ করতে পারছে না দেশের অন্যতম বড় দল বিএনপি। এক্ষেত্রে প্রতি বছর দলটির আয়ের থেকে ব্যয় বেশি হচ্ছে।

নির্বাচন কমিশনে (ইসি) দাখিল করা দলের আয়-ব্যয়ের হিসাব থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

বিএনপির আয়-ব্যয়ের হিসাব পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, ২০১৩ সালে (পঞ্জিকা বছর) দলটি ৭৬ লাখ ৫ হাজার ৭৬২ টাকা আয়ের বিপরীতে ২ কোটি ২৭ লাখ ২৫ হাজার ৩২৬ টাকা ব্যয় দেখিয়েছিলো। সে সময় ঘাটতি ছিলো প্রায় দেড় কোটি টাকা।

২০১৪ সালের (পঞ্জিকা বছর) দলটি বিভিন্ন খাতে দুই কোটি ৮৭ লাখ ৪৮ হাজার ৫৭৪ টাকা আয় দেখিয়েছে। আর ব্যয় দেখিয়েছে তিন কোটি ৫৩ লাখ তিন হাজার টাকা। এতে আয়ের চেয়ে ৬৫ লাখ ৫৪ হাজার ৪২৬ টাকা বেশি ব্যয় হয়েছে দলটির।

আর সর্বশেষ ২০১৫ সালের (পঞ্জিকা বছর) হিসাব অনুযায়ীও ১৪ লাখ ২৬ হাজার ২৮৪ টাকা ঘাটতিতে রয়েছে বিএনপি। মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) ওই হিসাব জমা দিয়েছে দলটি। এতে বিএনপি আয় দেখিয়েছে ১ কোটি ৭৩ লাখ ৩ হাজার ৩৬৫ টাকা। আর ব্যয় দেখিয়েছে ১ কোটি ৮৭ লাখ ২৯ হাজার ৬৪৯ টাকা।

উদ্বৃত্তে ধারাবাহিকতা আওয়ামী লীগের:
২০১৩ সালে আওয়ামী লীগ আয় দেখিয়েছিলো ১২ কোটি ৪০ লাখ টাকা। আর ব্যয় দেখিয়েছিলো ৬ কোটি ৭০ লাখ টাকা। এতে প্রায় ৬ কোটি টাকার দলটির উদ্বৃত্ত ছিল।

এদিকে ২০১৪ সালে দলটি আয় দেখিয়েছে ৯ কোটি ৫ লাখ ৪৫ হাজার ৬৪৩ টাকা। আর ব্যয় দেখিয়েছে ৩ কোটি ৪৪ লাখ ৪০ হাজার ৮২১ টাকা। এতে প্রায় সাড়ে পাঁচ কোটি টাকা উদ্বৃত্ত ছিল আওয়ামী লীগের।

সর্বশেষ ২০১৫ সালে দলটি আয় দেখিয়েছে ৭ কোটি ১১ লাখ ৬১ হাজার ৩৭৫ টাকা। আর  ব্যয় করেছে ৩ কোটি ৭২ লাখ ৮১ হাজার ৪৬৯ টাকা। অর্থাৎ এবারও দলটি প্রায় সাড়ে ৩ কোটি টাকার উদ্বৃত্ত দেখিয়েছে।

বিএনপির চেয়ে আ’লীগের আয় চার গুণেরও বেশি:
মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগও ইসিতে বিগত পঞ্জিকা বছরের আয়-ব্যয়ের হিসাব দাখিল করেছে। এতে আওয়ামী লীগ আয় দেখিয়েছে ৭ কোটি ১১ লাখ ৬১ হাজার ৩৭৫ টাকা। আর বিএনপি দেখিয়েছে ১ কোটি ৭৩ লাখ ৩ হাজার ৩৬৫ টাকা। অর্থাৎ ২০১৫ সালে (পঞ্জিকা বছর) বিএনপির আয়ের চার গুণের বেশি আয় করেছে আওয়ামী লীগ। ২০১৪ সালেও বিএনপির চেয়ে আওয়ামী লীগের তিন গুণের বেশি আয় ছিল।

গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ (আরপিও) অনুযায়ী, প্রতিবছর ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে দলগুলোকে আগের পঞ্জিকা বছরের আয়-ব্যয়ের হিসাব নির্বাচন কমিশনে দাখিল করতে হয়। বর্তমানে ইসিতে নিবন্ধিত দলের সংখ্যা ৪০টি।

গত জুলাই মাসে আওয়ামী লীগ-বিএনপিসহ ১০টি দল এক মাস সময় বাড়ানোর আবেদন করলে এবারও ইসি একমাস বাড়ায়। সে সুযোগ নিয়েই বিএনপি ও আওয়ামী লীগ মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) বিগত পঞ্জিকা বছরের আয়-ব্যয়ের হিসাব জমা দিল। আর ৮টি দল এখনো হিসাব জমা দেয়নি। পরপর তিন বছর আয়-ব্যয়ের হিসাব জমা না দিলে সংশ্লিষ্ট দলের নিবন্ধন বাতিলের বিধান রয়েছে আইনে।

দলগুলো সদস্যদের চাঁদা, অনুদান, মনোনয়ন ফরম বিক্রি, প্রকাশনা, পুস্তক বিক্রি থেকে আয় করে। আর সভা, সেমিনার, কর্মসূচি, অফিসের পরিসেবা, কর্মচারি-কর্মকর্তাদের বেতন ইত্যাদি খাতে ব্যয় করে।

-বাংলানিউজ

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like