রিকশা ও গাড়িচালক সেজে ঘুরছে জঙ্গিরা

নিউজ ডেস্ক: কখনো রিকশাচালক, কখনো আবার প্রাইভেট গাড়ির চালক সেজে রাজধানীত অস্ত্র বহন করছে জঙ্গিরা। একস্থান থেকে অন্যস্থানে বিস্ফোরক ও অস্ত্র থেকে শুরু করে জিহাদী বই পুস্তক আনা নেয়ার জন্যই তারা মূলত এই ছদ্মবেশ ধারণ করছেন বলে ধারণা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারীবাহিনীর।

বুধবার (৩ আগস্ট) বিকেলে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন-২ এর কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান র‌্যাব সদর দপ্তরের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক মুফতী মাহমুদ খান। নতুন জঙ্গি সংগঠন ‘আল-আনসার’র ৫ সদস্যকে আটক করে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে র‌্যাব-২।

বেলা ৩টার দিকে রাজধানীর হাজারীবাগের শিকদার মেডিকেলের পেছনে ‘আল জামিয়াতুল মদিনাতুল উলুম’ মাদরাসা ও এতিমখানার দক্ষিণ পাশের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে নতুন সংগঠনের সদস্যদের আটক করে র‌্যাব। আটকদের মধ্যে রয়েছে- সংগঠনের সমন্বয়কারী রাশিদুল আলম ওরফে রাশেদ (২৫), আবু বক্কর মনির (২৩), আবদুল্লাহ আল মামুন মিয়া (২৬), রাইসুল ইসলাম ওরফে রাসেল (২৫) এবং আব্দুল মালেক (৩৫)।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক বলেন, ‘প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আমরা জানতে পেরেছি আটক জঙ্গিদের মধ্যে আবু বকর মনির ও আব্দুল মালেক রিকশা চালক সেজে এবং রাসেল গাড়ি চালক সেজে বিস্ফোরক, অস্ত্রসহ নানা ধরণের জিহাদী মালামাল এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় পৌঁছে দিতে। কখনো কখনো সাধারণ মানুষের সাথে মিশে গিয়ে সদস্য সংগ্রহের চেষ্টাও চালাতো তারা।’

তিনি বলেন, ‘চলতি বছরের মে মাসের মাঝামাঝি সময়ে রাশিদুল নিজেকে মসজিদের ইমাম পরিচয় দিয়ে হাজারীবাগের ওই বাসা ভাড়া নিয়ে নতুন জঙ্গি সংগঠনের কার্যক্রম শুরু করে। তারা মূলত হরকাতুল জিহাদের (হুজি) কর্মী ছিলেন। পরে আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর নজর এড়াতেই তারা নতুন জঙ্গি সংগঠন ‘আল-আনসার’ গঠন করে।’

মুফতি মাহমুদ খান বলেন, ‘বর্তমান সময়ে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর ব্যপক তৎপরতার কারণে বড় জঙ্গি সংগঠনগুলো ভেঙে ছোট ছোট সংগঠনের রূপান্তরিত হচ্ছে। এরা সকলেই আলকাইদার মতাদর্শে বিশ্বাসী।

-বাংলামেইল২৪ডটকম

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like