জঙ্গি হামলার প্রেক্ষিতে ডিসিদের সতর্ক থাকার নির্দেশ

Cabinate-meeting1নিউজ ডেস্ক: গুলশান হত্যাকাণ্ড এবং শোলাকিয়ায় হামলার প্রচেষ্টার পরিপ্রেক্ষিতে সতর্ক থাকার জন্য জেলা প্রশাসকদের (ডিসি) বিশেষভাবে সতর্ক থাকার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম।

আসন্ন জেলা প্রশাসক সম্মেলন উপলক্ষ্যে রোববার (২৪ জুলাই) সচিবালয়ে মন্ত্রিসভাকক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ তথ্য জানান।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে গুলশান হত্যাকাণ্ড এবং শোলাকিয়ায় হামলার প্রচেষ্টা- এ’দুটো বিষয়ে আমরা জেলা প্রশাসকদের বিশেষভাবে সতর্ক করেছি। আমরা তাদেরকে একাধিক পত্র দিয়ে জানিয়েছি।

মহানগর, জেলা, উপজেলা, পৌরসভা, ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন পর্যায়ে সন্ত্রাস ও নাশকতা বিরোধী আইন-শৃঙ্খলা সম্পর্কিত কমিটি এবং বিভাগীয় ও জেলা পর্যায়ে কোর কমিটি রয়েছে। কোর কমিটিতে বিভাগীয় ও জেলা প্রশাসকরা সভাপতিত্বে করেন।

“এগুলো (কমিটি) যেন আরও শক্তিশালী ও কার্যকর করা হয়। তাদেরকে স্পেশাল ইনস্ট্রাকশন দেওয়া হয়েছে”।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, বিভাগ পর্যায়ে কোর কমিটিতে বিভাগীয় কমিশনারের সভাপতিত্বে ক্রাইসিস বা সময়ে সময়ে কোর কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। এখানে পুলিশের ডিআইজি, মহানগর পুলিশ কমিশনারসহ সংশ্লিষ্ট সকলে উপস্থিত থাকেন।

আর জেলা পর্যায়ে জেলা প্রশাসকের সভাপতিত্বে পুলিশ সুপার, আনসারের প্রতিনিধি, বিজিবি’র প্রতিনিধিদের নিয়ে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। এটা খুব হাই পাওয়ার কমিটি, এ কোর কমিটিগুলো যেন অ্যাক্টিভেট করা হয়। দ্রুত সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য এটা খুব কার্যকর মাধ্যম।

আইন-শৃঙ্খলার বিষয়টি নিয়ে জেলা প্রশাসক সম্মেলনে মন্ত্রীরাও কথা বলতে পারেন বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব শফিউল আলম।

আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত কমিটিগুলো খুব বেশি সক্রিয় না থাকা এবং কাজের ক্ষেত্রে কোনো বাধা আছে কিনা- প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, আমাদের যে ফ্রেমওয়ার্ক তাতে কাজ করার ক্ষেত্রে আমরা কোনো সমস্যার সম্মুখীন হইনি। জেলা পর্যায়ের কমিটিতে সুশীল সমাজ ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ সব ধরনের প্রতিনিধি রয়েছেন। তারা সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেন। আমরা কোন বাধা বা ঘাটতি দেখিনি। এরকম কোন রিপোর্ট আমাদের কাছে নেই। কোর কমিটিগুলো সব সময় সক্রিয় থাকে বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

তবে মাঠ পর্যায়ের কমিটিগুলোর বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, তারা মনে করেনি যে এই মুহূর্তে তাদের কোনো অ্যাক্টিভিটি আছে। ক্রাইসিস না হলে তো মানুষ সজাগ হয় না, ক্রাইসিসের প্রেক্ষাপটে নতুনভাবে তাদের অ্যাক্টিভেট করা হয়েছে।

আর আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভায় হয়তো পুলিশ সুপাররা দু’একটি ক্ষেত্রে উপস্থিত থাকে না, প্রতিনিধি পাঠান। তখন আমরা উপিস্থিত থাকার জন্য রিমাইন্ড করি। তবে কোর কমিটিতে প্রতিনিধি পাঠানোর সুযোগ নেই।

আগামী ২৬-২৯ জুলাই ঢাকায় জেলা প্রশাসক সম্মেলনের জন্য উপন্থাপিত আইন-শৃঙ্খলার বিষয়গুলো বিস্তারিত জানাননি মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-ছাত্রদের মধ্যে জঙ্গি সম্পৃক্ততার বিষয় উঠে আসায় প্রশাসনের এমন কিছু তথ্য আছে কিনা- জানতে চাইলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, আমাদের কাছে এমন কোন তথ্য নেই। এই মুহূর্তে আমরা বলতে পারছি না, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে কথা বলে বলতে হবে তাদের কোন অ্যাক্টিভিটি আছে কিনা? আমাদের জানামতে নেই।

-বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like