ক্যাটরিনার প্রথম সিনেমাটা মনে রাখার মত হলনা যে কারণে

61123-kat

বিনোদন ডেস্ক: ভুলে যাওয়ার মত অভিষেকের কথা বলা হলেই ওঠে মার্ভান আত্তাপাত্তু আর ক্যাটরিনা কাইফের নাম। আত্তাপাত্তু তাঁর প্রথম তিনটে টেস্ট করেছিলেন তিনটে শূন্য। ৬টা ইনিংসে মোট রান ছিল ২। আর ক্যাটরিনা! বলিউডের এখন প্রথম সারির নায়িকা শুরুটা করেছিলেন একটা বি গ্রেড সিনেমা দিয়ে। ২০০৩ সালে রিলিজ হওয়া ক্যাটরিনার প্রথম সিনেমার নাম ছিল ‘বুম’। সিনেমাটা একেবারে কড়া সমালোচনার মুখে পড়েছিল। সবাই একেবারে ছি ছি করেছিল ক্যাটের। ক্যাট নিজেও পরে স্বীকার করেছিলেন বাধ্য হয়েই এই সিনেমাটা করেছিলেন।

এতে ক্যাটরিনার কেরিয়ারের শুরুটা ধাক্কা খেয়েছিল বৈকি। কিন্তু জানেন কী ক্যাটের বলিউডের কেরিয়ারটা একেবারে অন্যরকম হতে পারত। অনুরাগ বসু পরিচালিত সুপারন্যাচারাল ফ্যান্টাসি সিনেমা ‘শায়া’-য় নায়িকার চরিত্রে অভিনয় করার কথা ছিল ক্যাটরিনার। মহেশ ভাট প্রযোজিত এই সিনেমায় ক্যাটরিনার যখন কাজ করা প্রায় নিশ্চিত। ক্যাটরিনার কথা শুনে ভাট ক্যাম্পের এক শীর্ষস্থানীয় ব্যক্তি তাকে বাতিল করে দেন। সেই ব্যক্তির যুক্তি ছিল, যে মেয়েটা ঠিকমত হিন্দিতে কথাই বলতে পারে না সে কী করে এত সিরিয়াস একটা রোলে অভিনয় করবে। বাতিল হয়ে যান ক্যাটরিনা।

পরে সেই চরিত্রে অভিনয় করেন তারা শর্মা। জন আব্রাহাম অভিনীত এই সিনেমা বক্স অফিসে দারুণ কিছু করতে না পারলেও সব মহলেই প্রশংসিত হয়। অনুরাগ, জন এখনও বলেন তাদের সেরা কাজের মধ্যে শায়া প্রথম দিকে থাকবে। বলাই বাহুল্য ক্যাটরিনার ফিল্মি কেরিয়ারে হিটের অভাব নেই, কিন্তু বলার মত চরিত্রের কথা উঠলে পিছিয়েই থাকেন। কেরিয়ারের শুরুটাই যদি ‘শায়া’ সিনেমার জন আব্রাহামের স্ত্রী মায়া-র ভূমিকায় অভিনয় করতে পারতেন তাহলে দারুণ হত বলিউডের এই গ্ল্যামারগার্লের।

সেই হিসেবে দেখলে বলিউডে বলার মত ক্যাটরিনার প্রথম ছবি হল রামগোপাল বর্মার সরকার(বলার মত চরিত্র ডেভিড ধাওয়ানের ‘ম্যায়নে পেয়ার কিঁউ কিয়া’)।

-জি নিউজ

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like