‘পর্যটনে অর্থনৈতিক উন্নয়ন ত্বরান্বিত করা সম্ভব’

menon 1নিউজ ডেস্ক: সমন্বিত পরিকল্পনা থাকলে পর্যটনকে কেন্দ্র করে ভারতের সীমান্তবর্তী বাংলাদেশ, নেপাল, ভুটান, মিয়ানমারের মধ্যে বাণিজ্যিক ও অর্থনৈতিক উন্নয়ন আরো ত্বরান্বিত হবে বলে জানিয়েছেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন।

তিনি বলেন, ‘পর্যটনকে কেন্দ্র করে হিমালয় অববাহিকার দেশসমূহের মধ্যে বাণিজ্যিক ও অর্থনৈতিক উন্নয়ন ত্বরান্বিত করা সম্ভব। তবে এ জন্য এ সব দেশগুলোকে নিয়ে সমন্বিত পরিকল্পনা প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন করতে হবে। শুরুতে এই এলাকার নদীগুলোকে ঘিরে এ পদক্ষেপের সূচনা করা যেতে পারে।’

শুক্রবার ভারতের মেঘালয় রাজ্যের রাজধানী শিলংয়ের কনভেনশন সেন্টারে ‘এশিয়ান কনফ্লুয়েন্স রিভার ফেস্টিভেল : নদী’ এর উদ্বোধনে অধিবেশনে কিনোট উপস্থাপনকালে তিনি এসব কথা বলেন। বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

রাশেদ খান মেনন বলেন, ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চল এবং এর সীমান্তবর্তী বাংলাদেশ, ভুটান, নেপাল এবং মিয়ানমারের মাঝে আঞ্চলিক সহযোগিতা ও উন্নয়নের ক্ষেত্র সম্প্রসারিত করতে নদী, রেল, সড়ক, বিমান ও পিপল টু পিপল কানেকশন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এ যোগাযোগকে ভিত্তি করেই হতে পারে কালচারাল, এডুকেশনাল, হেলথ ও রিলিজিয়ন ট্যুরিজম।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন- মেঘালয়ের মুখ্যমন্ত্রী মুকুল সাংমা, মিজোরামের মুখ্যমন্ত্রী শ্রী লালথানওয়ালা, বাংলাদেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা, ভারতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী প্রমুখ।

দুই দিন ব্যাপী এ সম্মেলনে অংশ নিয়েছে ভারত, বাংলাদেশ, নেপাল, ভুটান ও মিয়ানমার। সম্মেলনে ১০টি বিষয়ে সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে। এতে এ অঞ্চলের সম্ভাবনা ও চ্যালেঞ্জসমূহ নিয়ে আলোচনা হবে। আগামীকাল শনিবার শিলং ঘোষণার মধ্য দিয়ে এ উৎসব শেষ হবে।

-রাইজিংবিডি

 

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like