ইউরোর সেরা একাদশে রোনালদো

ক্রীড়া ডেস্ক: ২০০৪ সালে ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে গ্রিসের কাছে ১-০ ব্যবধানে হেরে যায় পর্তুগাল। ওই দলের সদস্য ছিলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। প্রায় এক যুগ পর সেই শিরোপায় চুমু এঁকে দেন পর্তুগিজ যুবরাজ। রোববার রাতে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে স্বাগতিক ফ্রান্সকে ১-০ গোলে পরাজিত করেছে তারা।

ইনজুরির কবলে পড়া রোনালদো ফাইনালে গোল না পেলেও গোটা টুর্নামেন্টে আলো ছড়িয়েছেন। অসাধারণ পারফরম্যান্সের সুবাদে সদ্য সমাপ্ত ইউরোর সেরা একাদশে আছেন তিনি। তবে এই একাদশে জায়গা হয়নি প্রথমবারের মতো খেলতে আসা ওয়েলকে সেমিফাইনালে তোলার নায়ক গ্যারেথ বেলের।

টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ ছয় গোল দেয়ার সুবাদে গোল্ডেন বুট ও গোল্ডেন বল জয়ী অ্যান্টোনিও গ্রিজমান আছেন ওই একাদশে। রয়েছেন তার সতীর্থ দিমিত্রি পায়েতও। গোলরক্ষক হিসেবে রয়েছে পর্তুগালের রুই প্যাট্রিসিও।

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সাবেক কোচ অ্যালেক্স ফার্গুসন, ডেভিড ময়েসসহ ১৩ জনকে নিয়ে গড়া বিশেষজ্ঞ প্যানেলের সাজানো একাদশে ঠাঁই পেয়েছেন জার্মানির তিন খেলোয়াড়। তারা হলেন- জশুয়া কিমিচ, জেরোম বোয়াটেং আর টনি ক্রুস।

ইউরোর সেরা একাদশ: রুই প্যাট্রিসিও, জশুয়া কিমিচ, জেরোম বোয়াটেং, পেপে, রাফায়েল গুয়েরেইরো, টনি ক্রুস, জো অ্যালেন, অ্যারোন রামজি, দিমিত্রি পায়েত, অ্যান্টোনিও গ্রিজমান ও ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like