প্রাথমিকে সমাপনী থাকছে

primary-school-coxsbazartimes.coml

শিক্ষা ডেস্ক:  প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা বাতিলের প্রস্তাবনায় অনুমোদন দেয়নি মন্ত্রিসভা। এরফলে প্রাথমিকের শিক্ষা অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত চালুকরণ আইন পাস না হওয়া পর্যন্ত পিএসসি এবং জেএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব সফিউল আলম। 

সোমবার (২৭ জুন) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে সচিবালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি একথা জানান।

তিনি জানান, মন্ত্রিসভায় অষ্টম শ্রেণিতে ‘প্রাইমারি স্কুল সার্টিফিকেট (পিএসসি)’ পরীক্ষা পদ্ধতি চালু করে পঞ্চম শ্রেণি পর্যায়ে বিদ্যমান প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) পরীক্ষা পদ্ধতি বাতিল করার প্রস্তাব মন্ত্রিসভায় উপস্থাপন করা হয়। কিন্তু মন্ত্রিসভা এ প্রস্তাবটি ফিরিয়ে দিয়ে আরো পরীক্ষা নিরীক্ষা করে উপস্থাপনের নির্দেশনা দিয়েছে।

তিনি বলেন, ‘কাজেই এই আইন পাস না হওয়া পর্যন্ত পিএসসি এবং জেএসসি যথা নিয়মে চলবে।’ এই প্রস্তাবনাকে ভালোভাবে যাচাই-বাছাই করে ফের মন্ত্রিসভায় উপস্থাপন করতে বলা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এদিকে বেশ কিছুদিন থেকেই দেশব্যাপি ব্যাপক আলোচনা সমালোচনা চলছে। অভিভাবকদের পক্ষ থেকে করা হয়েছে মানববন্ধনও। পরীক্ষা বন্ধের দাবিতে আন্দোলনকারীরা বলছেন, এত কম বয়সে এই পরীক্ষা শিশুদের মনে বিরূপ প্রভাব ফেলে। তাই অবিলম্বে এ পরীক্ষা বন্ধ করা উচিৎ।

অবশেষে গত ৩১ মে এক সংবাদ সম্মেলনে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা বাতিল করার নীতিগত সিদ্ধান্তের কথা জানান প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মুস্তাফিজুর রহমান। তিনি বলেছেন, ‘আমরা চাই প্রাথমিক সমাপনী একটি হবে, আর তা অষ্টম শ্রেণিতে। অষ্টম শ্রেণির পরীক্ষা শেষে আমরা শিক্ষার্থীদের সনদ দেব।’

২০০৯ সালে মন্ত্রিসভার সিদ্ধান্তে পঞ্চম শ্রেণিতে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষার (পিইসি) প্রচলন শুরু হয়। অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জন্য আয়োজন করা হয় জেএসসি পরীক্ষা। এবছর পঞ্চম শ্রেণির প্রাথমিক সমাপনী বাতিল করার সঙ্গে সঙ্গে প্রাথমিক শিক্ষা অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত করার চিন্তাভাবনা করা হয়েছে।

কিন্তু মন্ত্রিসভার আজকের এ সিদ্ধান্তে মন্ত্রীর জানানো এ ‘নীতিগত সিদ্ধান্ত’ খানিকটা পিছিয়েই গেল।

-বাংলামেইল২৪ডটকম

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like