হাঁপানির কষ্ট কমানোর উপায়

স্বাস্থ্য ডেস্ক : অ্যালার্জি, বায়ুদূষণ, ধুলাবালি বা ফুসফুসে সংক্রমণের কারণে হাঁপানি রোগ হতে পারে। হাঁপানির প্রকোপ বাড়লে ফুসফুসে বাতাস ঠিকভাবে সরবরাহ হয় না। এসময় দেখা দিতে পারে কাশি, নিঃশ্বাস নিতে প্রচণ্ড কষ্ট এবং বুক ভারী হয়ে থাকার অনুভূতি। হাঁপানি রোগের ডাক্তারি চিকিৎসা থাকলেও কিছু ঘরোয়া প্রতিকার ব্যবস্থা আছে। উপায় জানা থাকলে হঠাৎ সমস্যায় আপনি নিজেই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারেন। তাই জেনে নিন হাঁপানির কষ্ট কমানোর সহজ কিছু উপায়।

আদা:- হাঁপানি প্রতিরোধে ব্যবহৃত বিভিন্ন ওষুধ শ্বাসযন্ত্রের পেশি শিথিল করে কষ্ট কমিয়ে দেয়। সমপরিমাণ আদার রস, ডালিমের রস এবং মধু মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি দিনে দুই থেকে তিনবার এক টেবিল চামচ করে পান করুন। এছাড়া, দেড় কাপ পানিতে এক চা চামচ আদা বাটা মিশিয়ে রাখতে পারেন। ঘুমানোর আগে এই মিশ্রণ থেকে এক টেবিল চামচ করে পান করুন। ভালো ফল পাবেন। ঝামেলা এড়াতে লবণ দিয়ে কাঁচা আদা চিবাতে পারেন- তাতেও উপকার পাবেন।

রসুন:- ফুসফুসে জমে থাকা কফ দূর করে রসুন হাঁপানির কষ্ট দ্রুত কমায়। সেজন্য ১০ থেকে ১৫ টি রসুনের কোয়া ফুটিয়ে নিন আধা কাপ দুধে। দিনে একবার এই মিশ্রণ পান করতে হবে। রসুন দিয়ে চা তৈরি করেও পান করতে পারেন। এর জন্য এক পাত্র ফুটন্ত পানিতে ফেলে দিন ২ থেকে ৩ টি রসুনের কোয়া। তাপমাত্রা কমে এলে পান করুন।

কফি:- কফিতে থাকা ক্যাফেইন হাঁপানির কষ্ট কমাতে সহায়ক। তবে দিনে তিন কাপের বেশি কফি পান করা ঠিক নয়।

সরিষা তেল:- হাঁপানি সারাতে সরিষা তেল মালিশ করাটা বেশ উপকারী। এর জন্য অল্প একটু কর্পূর দিয়ে সরিষার তেল গরম করে নিতে হবে। এরপর তাপমাত্রা কুসুম গরম হয়ে আসলে তা রোগীর বুক ও পিঠে মালিশ করতে হবে। দিনে কয়েকবার মালিশ করা হলে কষ্ট কমে আসবে।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like