২ সাংবাদিককে তুলে নেওয়ার হুমকি, জাবিতে কড়া প্রতিবাদ

mithun20160613205731

জাতীয় ডেস্ক : জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই সাংবাদিককে ক্যাম্পাস থেকে তুলে নিয়ে যাওয়ার হুমকি দিয়েছেন একাত্তর টেলিভিশনের সাভার প্রতিনিধি মিঠুন সরকার।
ওই হুমকির পর মিঠুন সরকারকে ক্যাম্পাসে ঢুকতে না দিতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের জার্নালিজম অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থী প্রথম আলোর প্রতিনিধি এস এম রাসেল রাব্বি ও বাংলাদেশ প্রতিদিন প্রতিনিধি শরীফুল ইসলাম সীমান্ত রোববার লিখিতভাবে প্রশাসনকে ওই অভিযোগ জানানোর পর বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এ উদ্যোগ নেয়।

প্রক্টর অধ্যাপক তপন কুমার সাহা  বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, দুই সাংবাদিকের অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন যথাযথ ব্যবস্থা নেবে।

এদিকে একাত্তর টিভির বার্তা পরিচালক সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা  বলেন, আমরা সংবাদ পড়ে বিষয়গুলো জানতে পারছি। কিন্তু কেউ এখন পর্যন্ত কোন অভিযোগ দেননি।

অভিযোগকারীরা জানান, গত শনিবার রাতে একাত্তর টেলিভিশনের সাভার প্রতিনিধি পরিচয় দিয়ে মিঠুন সরকার নামে এক ব্যক্তি তাদের তুলে নিয়ে যাওয়ার হুমকি দেন।
বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনে জমা দেওয়া অভিযোগপত্রে তারা বলেন, গত ৮ জুন রাতে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মীর হাতে মারধরের শিকার হন বিডিনিউজটোয়েন্টিফোর ডটকমের বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি মো. শফিকুল ইসলাম। এ ঘটনার প্রতিবাদে এবং জড়িতদের বিচার দাবিতে পরদিন সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারের পাদদেশে মানববন্ধন করে জার্নালিজম অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগ ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রেস ক্লাব।

কিন্তু সাভার প্রতিনিধি মিঠুন সরকারের বরাতে একাত্তর টিভিতে প্রচার হয়, গত ৪ জুন নির্বাচনের দিন খ্রিস্ট্রান পল্লীতে সাংবাদিকদের ওপর হামলার প্রতিবাদে জার্নালিজম অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগ ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রেস ক্লাব মানববন্ধন করেছে।

অন্য অনেকের মতো ওই ফেসবুকে ‘উদ্দেশ্য প্রণোদিত ওই খবরের নিন্দা জানান রাসেল রাব্বী ও শরিফুল ইসলাম সীমান্ত। এরই প্রেক্ষিতে মিঠুন সরকার মোবাইলে ফোনে তাদের ক্যাম্পাস থেকে তুলে নিয়ে যাওয়ার হুমকি দেন। একই সঙ্গে সামাজিক যোগাযোগ তাদের নামে মিথ্যা ও কুরুচিপূর্ণ তথ্য উপস্থাপন করা হবে বলে ভয় দেখান।

এ বিষয়ে নিজের পক্ষে সাফাই গেয়ে মিঠুন সরকার বলেন, ভিডিওতে ভুল গেলেও স্ক্রলে খবরটি সঠিক গিয়েছিল। একটা ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল। সমাধান হয়েছে।

এদিকে সোমবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিকরা মিঠুন সরকারকে ক্যাম্পাসে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে উপাচার্য বরাবর স্মারকলিপি দেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা কর্মকর্তা জেফরুল হাসান চৌধুরী বলেন, স্মারকলিপি পেয়ে মিঠুন সরকার যাতে ক্যাম্পাসে ঢুকতে না পারে সে নির্দেশ দিয়েছেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আবুল হোসেন।

দুই সাংবাদিককে হুমকির ঘটনায় রোববার বিবৃতি দিয়ে নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (জাবিসাস) ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (ঢাবিসাস)। আর মিঠুন সরকারকে ‘বয়কটের’ আহ্বান জানিয়েছে ছাত্র ইউনিয়ন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় সংসদ ও বিশ্ববিদ্যালয় সাংস্কৃতিক জোট।

-বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like