বাপকা বেটি জেমি লিভার

ae1a9c5e1e8eaeb78690d2dcaed8d738-JAMIE_LEVER-1বিনোদন ডেস্ক :  নব্বইয়ের দশকে বলিউডের ছবিগুলো কৌতুকাভিনেতা জনি লিভারকে ছাড়া অসম্পূর্ণ ছিল। ছবিতে কমেডি মানেই জনি লিভার থাকতে হবে। মেধাবী এই কৌতুকাভিনেতা এখন খুব বেছে কাজ করেন। নিয়মিত করেন স্টেজ শো। আর এসব মঞ্চ পরিবেশনায় জনির সঙ্গী হন তাঁর মেয়ে জেমি লিভার।

বাবার মতো মেয়ে জেমিও দারুণ মেধাবী। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে জেমির ভক্ত ও অনুসারীদের তালিকাটাও বেশ বড়।
জনি লিভারকে তাঁর অভিনয়জীবনের অনেক লম্বা একটা সময় সংগ্রাম করতে হয়েছে। গায়ের রং কিংবা ভাঁড় বলে তিনি অনেক তাচ্ছিল্যের মুখোমুখিও হয়েছেন। তবে একটা সময় ঠিকই মেধা দিয়ে তারকাখ্যাতি অর্জন করেছেন এ শিল্পী। জেমি লিভারের অবস্থাটা অনেকটা বাবার মতোই। তারকাসন্তান হিসেবে যে সুবিধাগুলো বাকিরা পান জেমি তা ব্যবহার করেননি। বরং নিজস্বতা দিয়ে ভক্তদের মন জয় করেছেন। আর শ্যামবর্ণের হলেও নিজের মাধুর্য দিয়ে তিনি মাত করেছেন অনেক তরুণ হৃদয়।বাবা জনি লিভারের সঙ্গে জেমি
লন্ডনের ইউনিভার্সিটি অব ওয়েস্টমিনিস্টার থেকে মার্কেটিং বিষয়ে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর করেছেন জেমি। কিন্তু যখন পেশা বেছে নেওয়ার সময় এল, তখন মোটা বেতনে কোনো করপোরেট প্রতিষ্ঠানে চাকরি খোঁজেননি। বরং বাবার মতো কৌতুককেই নিজের পরিচয় আর পেশা হিসেবে গ্রহণ করেছেন।
ইনস্টাগ্রামে জেমি তাঁর কৌতুকের পাশাপাশি নিজের গান ও নাচের ভিডিও নিয়মিত পোস্ট করেন। তা ছাড়া এরই মধ্যে তাঁর বলিউড অভিষেকও হয়ে গেছে। কৌতুকাভিনেতা কপিল শর্মা অভিনীত ছবি ‘কিস কিস কো পেয়ার কারু’তে জেমি একটি বিশেষ চরিত্রে অভিনয় করেছেন। নায়িকা নন, কৌতুকাভিনেতা হিসেবেই ছবিতে তাঁকে দেখা গেছে। ছবিতে কপিল শর্মার বাড়ির গৃহপরিচারিকার চরিত্রটি ছিল জেমির। বলিউড বাবল।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like