কক্সবাজারের ৯ ইউনিয়ন : চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ ২, বিএনপি ২, স্বতন্ত্র ৫

coxsbazar election pic 28.05.16 - (2)নিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজারটাইমসডটকম, ২৮ মে : পঞ্চম দফার ঘোষিত ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) এর তফসীল মতে অনুষ্ঠিত কক্সবাজার জেলার ৯ টি ইউনিয়নের নির্বাচনে আওয়ামীলীগের ২ জন, বিএনপির ২ জন এবং স্বতন্ত্র ৫ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছে।

স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত ৫ জনের জন্য ৪ জন হলেন আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র এবং অপর জন জামায়াত সমর্থিত প্রার্থী।

ঘোষিত ফলাফলের মধ্যে কক্সবাজার সদর উপজেলার ৪ ইউনিয়নের মধ্যে ২ টি আওয়ামীলীগ, একটি বিএনপি এবং অপরটি জামায়াত সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছেন।

এতে কক্সবাজার সদরের ঝিলংজা ইউনিয়নে বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামীলীগের প্রার্থী টিপু সুলতান। পিএমখালী ইউনিয়নে বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন জামায়াত সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুর রহিম।

কক্সবাজার সদরের ঝিলংজা ও পিএমখালী ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটানিং কর্মকর্তা উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এসএম শাহাদাত হোসেন প্রাপ্ত ভোট জানাতে না পারলেও এ ফলাফল নিশ্চিত করেন।

ভারুয়াখালী ইউনিয়নে বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন বিএনপির প্রার্থী শফিকুর রহমান সিকদার। খুরুশকুল ইউনিয়নে বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামীলীগের প্রার্থী জসিম উদ্দিন।

ভারুয়াখালী ও খুরুশকুল ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটানিং কর্মকর্তা উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা মো. আবু মকছুদ প্রাপ্ত ভোট জানাতে না পারলেও এ ফলাফল নিশ্চিত করেন।

রামু উপজেলার ৫ টি ইউনিয়নের ৪ টিকে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী এবং একটিতে বিএনপির প্রার্থী।

এর মধ্যে ঈদগড় ইউনিয়নে বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান ফিরোজ আহমদ ভূট্টো। তার প্রাপ্ত ভোট ৩ হাজার ৬৪। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী বিএনপি’র প্রার্থী নুরুল আজিম ২ হাজার ৯৬৫ ভোট পেয়েছেন।

রশিদ নগর ইউনিয়নে বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী শাহ আলম। তার প্রাপ্ত ভোট ২ হাজার ৪৫০। তার নিকটতম প্রার্থী বিএনপির আবদুর করিম পেয়েছেন ১ হাজার ৮৫৫ ভোট।

রামু উপজেলার ঈদগড় ও রশিদনগর ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটানিং কর্মকর্তা রামু উপজেলা সমবায় কর্মকতা মো. সলিম উল্লাহ এ ফলাফল নিশ্চিত করেন।

গর্জনিয়া ইউনিয়নে বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী নজরুল ইসলাম। তার প্রাপ্ত ভোট ৪ হাজার ৯৫৬। তাঁর নিকটতম প্রার্থী বিএনপি দলীয় প্রার্থী গোলাম মওলা চৌধুরী ৩ হাজার ৯৮ ভোট পেয়েছেন।

কচ্ছপিয়া ইউনিয়নে বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন বিএনপির প্রার্থী আবু মো. ইসমাইল নোমান। তার প্রাপ্ত ভোট ৩ হাজার ৯৮২। তার নিকটতম প্রার্থী আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী জাফর আহমদ পেয়েছেন ৩ হাজার ৯৫৬ ভোট।

গর্জনিয়া ও কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটানিং কর্মকর্তা রামু উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ড. রুপেন চাকমা এ ফলাফল নিশ্চিত করেন।

কাউয়ারখোপ ইউনিয়নে বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী মোস্তাক আহমদ। তার প্রাপ্ত ভোট ৪ হাজার ১৮২। তাঁর নিকটতম বিএনপি দলীয় প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান নুরুল হক ৩ হাজার ৫৪০ ভোট পেয়েছেন।

কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটানিং কর্মকর্তা রামু উপজেলা প্রৌকশলী বিশ্বজিৎ দত্ত এ ফলাফল নিশ্চিত করেন।

কক্সবাজার জেলার ৯ টি ইউনিয়নে শনিবার সকাল ৮ টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়। বিচ্ছিন্ন কয়েকটি ঘটনা ছাড়া শান্তিপূর্ণ পরিবেশে তা চলে ৪ টা পর্যন্ত। তার পর রাতে ঘোষণা করা হয় এ ফলাফল। এ ৯ ইউনিয়নে ১ লাখ ৪১ হাজার ৪১২ জন ভোটার ছিলেন। এ ৯ ইউনিয়নের মোট প্রার্থীর সংখ্যা ছিল ৪৫৩ জন। যার মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৪০ জন, সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ৯৩ জন এবং সাধারণ সদস্য পদে ৩২০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্ধীতা করছেন। এর মধ্যে কক্সবাজার সদর উপজেলার ৪ টি ইউনিয়নে ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা ৪২ টি। যার মধ্যে ভোটার সংখ্যা হল ৮১ হাজার ২২৯ জন। এ ৪ ইউনিয়নে ২২০ জন প্রার্থী রয়েছেন। যেখানে চেয়ারম্যান ১৯ জন, সংরক্ষিত নারী সদস্য ৪৩ জন এবং সাধারণ সদস্য প্রার্থী ১৫৮ জন। রামু উপজেলার ৫ টি ইউনিয়নে ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা ৪৫ টি। যার মধ্যে ভোটার সংখ্যা হল ৬০ হাজার ১৮৩ জন। এ ৫ ইউনিয়নে ২৩৩ জন প্রার্থী রয়েছেন। যেখানে চেয়ারম্যান ২১ জন, সংরক্ষিত নারী সদস্য ৫০ জন এবং সাধারণ সদস্য প্রার্থী ১৬২ জন।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like