মেয়ের বাবা হলেন রেলমন্ত্রী

2016_05_28_17_17_33_dfFTV2GXXeLQuunsNY0CokAAzrbSbu_original

দেশ ডেস্ক : আরেকটি অপেক্ষার প্রহর শেষ হলো ৬৮ বছর বয়সী রেলমন্ত্রী মুজিবুল হকের। তিনি কন্যা সন্তানের বাবা হয়েছেন।

শনিবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে মজিবুল হকের স্ত্রী হনুফা আক্তার রিক্তা কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। নবজাতক এবং মা দু’জনই সুস্থ আছেন বলে পরিবার সূত্র জানিয়েছে।

জীবনের সিংহভাগ সময় একাকী কাটিয়ে দেয়া রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক বিয়ে করেছেন প্রায় দেড় বছর আগে। এবার সুখবর এলো তার বাবা হওয়ার।

এদিকে স্কয়ার হাসপাতালের হেল্প লাইন ডেস্কে ফোন দিলে নাম না প্রকাশ করার শর্তে এক কর্মকর্তা বাংলামেইলকে বলেন, ‘জ্বি, স্যারের মেয়ে হয়েছে। এবং মা ও মেয়ে দুজনই ভালো আছেন।’ তবে এর চেয়ে বেশি কোনো তথ্য দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন ওই কর্মকর্তা।

অবশ্য স্কয়ার হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, স্কয়ার হাসপাতালের গাইনি এবং অবস বিভাগে সিজারের মাধ্যমে হনুফা আক্তার কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। অপারেশনটি করেন ডক্টর নার্গিস ফাতেমা। নবজাতকের ওজন ২.৫ কেজি বলে জানা গেছে।

আগামী ৩১ মে মন্ত্রীর ৬৯তম জন্মদিন। তাই এ জন্মদিনটা তার জন্য হয়ে উঠতে পারে একেবারেই অন্যরকম। প্রিয় সন্তানকে কোলে নিয়ে হয়তো তিনি জন্মদিনের শুভেচ্ছা গ্রহণ করবেন।

২০১৪ সালের ৩১ অক্টোবর ৬৭ বছর বয়সে বিয়ে করেন কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের জনপ্রিয় নেতা মুজিবুল হক। ৫ লাখ ১ টাকা দেনমোহরে একই জেলার চান্দিনার মেয়ে হনুফা আক্তার রিক্তার (৩২) সঙ্গে সেই বন্ধনে আবদ্ধ হন তিনি। এ বিয়ে নিয়ে অবশ্য দেশজুড়ে তুমুল আলোড়ন সৃষ্টি হয়। এবার দেশের মানুষকে আরেকবার আনন্দে মেতে ওঠার সুযোগ করে দিচ্ছেন রেলমন্ত্রী।

প্রসঙ্গত, ১৯৪৭ সালের ৩১ মে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার শ্রীপুর ইউনিয়নের বসুয়ারা গ্রামে মো. মুজিবুল হক জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৯৬, ২০০৮ ও ২০১৪ সালে তিনি চৌদ্দগ্রাম থেকে সাংসদ নির্বাচিত হন। ২০১২ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর থেকে তিনি রেলপথমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন।

অন্যদিকে ১৯৮৫ সালের ২০ মে হনুফা আক্তার ওরফে রিক্তা জন্মগ্রহণ করেন। ২০০১ সালে গল্লাই আবেদা নূর বালিকা উচ্চবিদ্যালয় থেকে রিক্তা এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। এরপর তিনি স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করে এলএলবি পাস করেন।

-বাংলামেইল২৪ডটকম

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like