‘ক্ষমা করবেন ‎শ্যামলকান্তি‬ স্যার’

2016_05_17_13_31_23_wkK63MwzvKltngehevYQC5Cq3gv0Gw_original

দেশ ডেস্ক :  নারায়ণগঞ্জে স্কুলের প্রধান শিক্ষককে গণধোলাই ও পরে সাংসদের নির্দেশে কান ধরে উঠবসের ন্যাক্কারজনক ঘটনায় দেশব্যাপী শুরু হয়েছে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা। 

ইতোমধ্যে ‘একজন শিক্ষককে কান ধরে উঠবস করানোর ঘটনায় বাংলাদেশকেই কান ধরে উঠবস করানো হয়েছে’, এমন মন্তব্য করে শাহবাগে জমায়েতের ঘোষণা দিয়েছে ‘লেখক-শিল্পী-শিক্ষক-সাংস্কৃতিক কর্মীবৃন্দ’। আজ মঙ্গলবার বিকেল ৫টায় তারা প্রতিবাদে শামিল হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন সর্বস্তরের মানুষকে। এদিকে সাড়ে ১১টায় শাবিপ্রবির কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে এ কর্মসূচি পালন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। আধা ঘণ্টাব্যাপী এ কর্মসূচিতে শিক্ষার্থীরা সারাদেশে শিক্ষকদের বিভিন্নভাবে হয়রানির প্রতিবাদে কান ধরে মৌনবন্ধনে আবদ্ধ হন।

গতকাল এ ব্যাপারে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলেছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। আজ এ ঘটনাকে শাস্তিযোগ্য অপরাধ বলেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। আইনমন্ত্রী বলেন, ‘শিক্ষককে কান ধরে উঠবস করার ঘটনাটি পেনাল কোড (দণ্ডবিধি) অনুযায়ী শাস্তিযোগ্য অপরাধ। যারা এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত, তারা শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছেন।’ জড়িতদের বিচারের আওতায় আনা হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

এদিকে এ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে।

ইফতেখার আমিন নামে একজন ফেসবুকে লিখেছেন, ‘আমার বাবাও প্রধান শিক্ষক ছিলেন। নারায়ণগঞ্জের শিক্ষকের জায়গায় আমি যেন বাবাকেই দেখছি! যে জয় বাংলা শুনে উদ্বেলিত হয়ছি, আলোড়িত হয়ছি, চেতনায় শাণিত হয়েছি। সেই জয় বাংলা শুনে আজ প্রতিমুহূর্তে কুঁকড়ে যাচ্ছি। নাহ, একজন শিক্ষকের সন্তান হিসেব বিচার চাই না। ওটা হাস্যকর এদেশে এখন। ‘জয় বাংলা’ বলে বিশ্বজিৎকে হত্যা? ওটা অনাকাঙ্খিত! ‘জয় বাংলা’র সরকারের সচিবের গলাধাক্কায় মুক্তিযোদ্ধার আত্মহত্যা? ওটা মুক্তিযোদ্ধার ছেলে মানুষী! ‘জয় বাংলা’ বলে শিক্ষককে কান ধরে উঠবস করানো? ওটা তো নস্যি ঘটনা ম্যান! যে দেশে গলা কেটে ফেলা জায়েজ, সেই দেশ এমপি মহোদয়ের (!) একটু কান ধরে উঠবস করিয়ে ছেড়ে দিয়েছেন সেই তো কপাল! এমপি হইলে বুঝি আর দুষ্টামি করতে ইচ্ছা করতে পারেনা! এই সামান্য একটু দুষ্টুমি নিয়া এত্তো কথা! বাঙালি পারেও..!’

আবার কেউ কেউ নিজেদের কানধরা ছবি কিংবা ভিডিও পোস্ট করে ঘটনার প্রতিবাদ জানাচ্ছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে। এরকম কান ধরে উঠবস করা একটি ভিডিও পোস্ট করে রাকিব কিশোর লিখেছেন, ‘জাতির সর্বোচ্চ পদে আসীন এবং জাতির মেরুদন্ড বলে স্বীকৃত মহান শিক্ষককে অপমান করলাম আমরা। আমিও একজন অপরাধী, আমারো শাস্তি হওয়া উচিত। আমি লজ্জিত স্যার…।’

সময় টেলিভিশনের সিনিয়র ক্রাইম রিপোর্টার ওমর ফারুকের কান ধরে পোস্ট করা ছবিতে আলী তালুকদার নামে একজন কমেন্ট করেছেন, ‘ইতিহাস সাক্ষী দেয় – বঙ্গবন্ধু কোনো‍দিন শিক্ষকদের তুমি বলতেন না – কারণ তিনি বঙ্গবন্ধু। আর তার আদর্শের আনুপ্রেরণার আজ ২০১৬ তে দাঁড়িয়ে কি এই নমুনা! জাতি হিসেবে আমরা কিসের দাবি রাখবো? বাঙ্গালি জাতি তো সম্মান করতে জানে, আন্দোলন করতে জানে, বিশ্বের বুকে মাথা নত করে না- তবে আজ আমরা কিসে মাথা নত করছি তা সুস্থ মস্তিস্কে কীভাবে নেব…?’

মো. সামিউল মুইদ লিখেছেন, ‘ক্ষমা করবেন ‪#‎শ্যামলকান্তিভক্ত‬ স্যার, আপনি না, কানে ধরেছে বাংলাদেশ।’

সরকার কিংসুক লিখেছেন, ‘আমার বাবা সরকারি কলেজের প্রিন্সিপাল ছিলেন। ভিডিওটা দেখার পর ভাবছিলাম, আমার বাবারও হয়তো এ অবস্থা হতে পারতো। তিনিও এভাবে কানধরে উঠবস করতেন, তারপর মাফ চাইতেন এত বছর ধরে হাজার হাজার ছাত্র বানানোর জন্যে। ভাগ্য ভালো, এর আগেই তিনি অবসরে গেছেন গত বছর। বাবার ফেসবুক দেখছিলাম, তিনি শুধু দুটো লাইন লিখেছেন – ‘যায় যদি যাক প্রাণ, শিক্ষককে যিনি কান ধরান- তিনি ভগবান।’

-বাংলামেইল২৪ডটকম

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like