জয়কে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ভর্তির পরামর্শ রিজভীর

2016_05_07_19_10_58_3XEE1bEIrdK1a2vfIKehX8Gf5IVbBv_original

রাজনীতি ডেস্ক : সৌজন্যবোধ ও ভদ্র আচরণ শেখার জন্য প্রধানমন্ত্রীর ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয়কে বাংলাদেশের যেকোনো একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ভর্তি করাতে প্রধানমন্ত্রীকে পরামর্শ দিয়েছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।

শনিবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে ‘বাংলাদেশ প্রজন্ম একাডেমি’ আয়োজিত ‘জিয়াউর রহমান বীরউত্তমের ৩৫তম মৃত্যুবার্ষিকী, বহুদলীয় গণতন্ত্র, বর্তমান গণতন্ত্রের আওয়ামী স্টাইল ও আমাদের করণীয়’- শীর্ষক এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীকে এ পরামর্শ দেন রিজভী।

প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘আপনার ছেলের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ উঠেছে। বিএনপির চেয়ারপারসন তথ্যের ওপর ভিত্তি করে বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রে সজীব ওয়াজেদ জয়ের একাউন্টে ২ হাজার ৫০০ কোটি টাকা আছে। সঙ্গে সঙ্গেই আপনি চিৎকার শুরু করে দিলেন। আর আপনার ছেলে তিনবারের প্রধানমন্ত্রী একজন ভদ্র মহিলার (খালেদা জিয়া) বিরুদ্ধে নোংরা ও আজেবাজে কথা বলা শুরু করে দিলো। অথচ দেশনেত্রী যে তথ্য দিয়েছেন, তা প্রমাণের দায়িত্ব আপনার ছেলের।’

তিনি আরো বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী আপনি গত বৃহস্পতিবার সংসদে দাঁড়িয়ে উচ্চ স্বরে আপনার গুণাবলীর কথা বলেছেন। আপনি বলেছেন, জয় উচ্চশিক্ষিত। তবে জয় কোনো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গ্রাজুয়েট, পোস্ট গ্রাজুয়েট অথবা ডক্টরেট, পোস্ট ডক্টরেট করেছেন, তা আপনি ছাড়া আওয়ামী লীগের অন্য কোনো নেতা কখনো বলেননি। এখন আপনি বলছেন, ঠিক আছে। বাংলাদেশের একজন রাজনীতিবিদের ছেলে উচ্চশিক্ষিত, এটি ভালো কথা।’

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব প্রশ্ন রেখে বলেন, ‘একজন সুশিক্ষিত ছেলে কি কখনো তার মায়ের বয়সী কোনো ভদ্র মহিলার নামে নোংরা ভাষায় কথা বলতে পারেন? তিনি তাহলে কোথায় লেখাপড়া করেছেন? সেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কি এই পৃথিবীতে আছে, নাকি মঙ্গলগ্রহে?’

রিজভী বলেন, ‘সজীব ওয়াজেদ জয় যখনই প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি উপদেষ্টা, তখনই শেয়ারবাজার ও ব্যাংকগুলো ধ্বংস, বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ থেকে ৮০০ কোটি টাকা লোপাট। রাজকোষ শূন্য। তাহলে এটিই কি তথ্য ও প্রযুক্তি উপদেষ্টার সফলতা? এ রকম পরিস্থিতে দেশ চলতে পারে না।’

বাংলাদেশ প্রজন্ম একাডেমির সভাপতি কালাম ফয়েজীর সভাপতিত্বে এতে আরো বক্তব্য দেন- বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরিন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম গোলাম মোস্তফা ভূঁইয়া, এনডিপির প্রেসিডিয়াম সদস্য মঞ্জুর হোসেন ঈসা, মুক্তিযোদ্ধা দলের সভাপতি ইসতিয়াক আজিজ উলফাত, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক সাদেক আহমেদ খান প্রমুখ।

-বাংলামেইল২৪ডটকম

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like