ছাত্রীর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় অধ্যক্ষ আটক

2016_05_05_22_39_14_zaVGxsLBOefoteJFPQ25DDZKYviFkZ_original

দেশ ডেস্ক : কুষ্টিয়া সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. বদরুদ্দোজাকে একই কলেজের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় আটক করেছে শিক্ষার্থীরা।

বৃহস্পতিবার বিকেলে কলেজের শিক্ষার্থী হোষ্টেল সংলগ্ন অধ্যক্ষের বাসভবনে এঘটনা ঘটে। এসময় শিক্ষার্থীর আত্মচিৎকারে অন্যান্য শিক্ষার্থীরা ঘটনাস্থলে ছুটে আসে।

এসময় কলেজের হোষ্টেলে থাকা শিক্ষার্থীরা ক্ষোভে ফেটে পড়ে অধ্যক্ষের বাসভবনে ব্যাপক ভাঙচুর চালায়। এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা তার বাসার টিভি, ফ্রিজ ও বিভিন্ন আসবাবপত্র ভাঙচুর করে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

জানা গেছে, বিকেলে বাসভবনে স্ত্রী ও মেয়ে না থাকার সুযোগে কলেজের পরিসংখ্যান বিভাগের ১ম বর্ষের তৃষ্ণা নামের এক শিক্ষার্থীকে মোবাইল ফোনে ডেকে নেয়। এরপর অধ্যক্ষ তাকে অনৈতিক কাজের প্রস্তাব করলে সে চিৎকার চেঁচামেচি শুরু করে।

কলেজের শিক্ষার্থী সাদ্দাম, অন্যন্যা, জীবনসহ আরও কয়েকজন জানান, বৃহস্পতিবার বিকেলের দিকে কলেজের পরিসংখ্যান বিভাগের ১ম বর্ষের শিক্ষার্থী তৃষ্ণার চিৎকার চেঁচামেচিতে তারা অধ্যক্ষের বাসভবনের দিকে যায়। এরপর তৃষ্ণা জানায়, অধ্যক্ষ স্যার তাকে জোর পূর্বক জাপটে ধরে। একথা শোনার পর হোস্টেলের শিক্ষার্থীরাসহ সাধারণ শিক্ষার্থীরা অধ্যক্ষের বাসভবনে হামলা চালায়।

কুষ্টিয়া সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. বদরুদ্দোজা বলেন, ‘আমাকে ষড়যন্ত্র করে ফাসানো হয়েছে। কারণ আমি দীর্ঘ ৫ বছর যাবৎ এই কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছি। যার কারণে কেউ ঈর্শ্বান্বিত হয়ে আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করেছে।’

এদিকে শিক্ষার্থীরা ক্ষোভে ফেটে পড়ে ভাঙচুরসহ বিক্ষোভ মিছিল ও ঝাড়ু হাতে নিয়ে মিছিল করে। পুরো ক্যম্পাস জুড়ে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহাবুদ্দিন চৌধুরী জানান, অধ্যক্ষের বাসায় শিক্ষার্থীরা হামলা চালিয়েছে। আমরা ঘটনা শুনে সেখানে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করি। এসময় ভেতরে প্রবেশ করে দেখি বাসায় তছনছ হয়েছে।

তিনি আরও জানান, এই কলেজের অধ্যক্ষ ওপেন হার্ট সার্জারী রোগী। সে অসুস্থ্যতায় ভুগছিলেন। তার অবস্থা খারাপ হওয়ার কারণে তাকে অ্যাম্বুলেন্সে করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। সেখানে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হলে তাকে ঢাকায় রেফার্ড করে হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক।

কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার প্রলয় চিসিম জানান, লিখিত অভিযোগ পেলে আইনানুগভাবে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

-বাংলামেইল২৪

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like