প্রতিবন্ধীকেও ছাড়লো না? ছি বুড়ো ভাম!

2016_04_18_13_36_29_w00bYgQQWXZn8R9RaGwlYoeSTpKNKR_original

দেশ ডেস্ক :  সারাদেশে নারী নির্যাতনের সঙ্গে বাড়ছে ধর্ষণের ঘটনাও। এবার কাইমুল ইসলাম নামে ষাটোর্ধ্ব এক বৃদ্ধের দ্বারা ধর্ষিত হয়েছে ১৪ বছরের কিশোরী। তাও আবার প্রতিবন্ধী। সম্প্রতি কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের ছাত্রী সোহাগী জাহান তনু হত্যার জেরে সারাদেশে বেশ সোচ্চার আন্দোলন হয়। তারপরও এ ধরনের ঘটনা ঘটছেই। বিশেষত কাইমুল ইসলামের মতো বৃদ্ধ লোকদেরও এ ধরনের মনোবৃত্তিতে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।

পঞ্চগড় প্রতিনিধি জানিয়েছেন, রোববার দুপুরে (১৭ এপ্রিল) জেলার পঞ্চগড় সদর উপজেলার চাকলাহাট ইউনিয়নের শিংরোড এলাকায় ওই প্রতিবন্ধী শিশুটি ধর্ষণের শিকার হয়। পুলিশ জানায়, ধর্ষণের শিকার শিশুটির চিৎকারে তার মা এগিয়ে এলে ধর্ষক কায়মুল দৌড়ে পালিয়ে যায়। বিকেলে ওই শিশুকে উদ্ধার করে প্রথমে পঞ্চগড় থানায় নিয়ে আসা হয়। পরে প্রয়োজনীয় ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ধর্ষণের শিকার শিশুটির বাবা বাদী হয়ে রোববার রাতে কাইমুল ইসলামকে আসামি করে পঞ্চগড় সদর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই (রাত ১১টায়) পুলিশ অভিযান চালিয়ে ধর্ষক কায়মুলকে গ্রেপ্তার করে। পঞ্চগড় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মমিনুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

গ্রেপ্তারের পর ধর্ষকের ছবিও প্রকাশ করে পুলিশ প্রশাসন। সেই ছবি সোশ্যাল সাইটগুলোতে শেয়ার করে ঘৃণা ভরে পোস্ট দিচ্ছেন অনেকেই। পঞ্চগড়ের এক শিক্ষার্থী তার পোস্টে লিখেছেন, ‘একটা প্রতিবন্ধী শিশুকেও ছাড়লো না? ছি বুইড়া ভাম! শিগগিরই এ ঘটনার বিচার চাই।’

আরেকজন লিখেছেন, ‘এ মানসিকতার মানুষ সমাজের কীট। তাদের উপযুক্ত শাস্তি দেয়া হোক। আর সমাজে ঘৃণার পাত্র বানিয়ে বোঝানো হোক তারা কতটা পশু! এতে অন্যরাও সাবধান হবেন নিশ্চয়ই।’

-বাংলামেইল২৪

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like