নিখোঁজের ৪ বছর : এখনো অপেক্ষায় স্বজন-সহকর্মীরা

Syl1460867570রাইজিংবিডি : ১৭ এপ্রিল ২০১২। মধ্যরাত। ঢাকার বনানী। ২ নম্বর রোডের সাউথ পয়েন্ট স্কুল অ্যান্ড কলেজের সামনে চালকবিহীন অবস্থায় পাওয়া গেল একটি প্রাইভেট কার। মুহূর্তেই জানা হয়ে গেল, গাড়িটি বিএনপি নেতা ইলিয়াস আলীর । বনানীতেই তার ‘সিলেট হাউস’ থেকে মাত্র ৩০০ গজ দূরে গাড়িচালক আনসার আলীসহ তুলে নিয়ে যাওয়া হয় ইলিয়াস আলীকে।

এরপর অপেক্ষার প্রহর গুনতে গুনতে পেরিয়েছে ১৪৬১ দিন। এই এতগুলো দিন কিংবা পুরো চার বছরেও ফুরাচ্ছে না স্বজন ও দলীয় নেতা-কর্মীদের অপেক্ষার প্রহর। এখনো চলছে নিরন্তর অপেক্ষা। তিনি ফিরবেন।

ইলিয়াস আলী ছিলেন সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি। ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক। কয়েক দিন আগে যে পদ থেকে তিনি ‘সাবেক’ হয়েছেন। দ্রুততম সময়ে বিএনপির প্রভাবশালী নেতা হয়ে উঠেছিলেন তিনি। সেই তার রহস্যময় নিখোঁজের দীর্ঘ চার বছর পূর্ণ হচ্ছে আজ।

২০১২ সালের ১৭ এপ্রিল ঢাকার বনানী থেকে তিনি নিখোঁজ হন। তার সঙ্গে ব্যক্তিগত গাড়িচালক আনসার আলীকেও মেনে নিতে হয় একই ভাগ্য।

ইলিয়াস আলী ‘নিখোঁজ’ হওয়ার পর দফায় দফায় হরতাল পালন করেছিল বিএনপি। ছিল বিক্ষোভ মিছিল, প্রতিবাদ সমাবেশ, দোয়া মাহফিল, মিলাদ মাহফিল, মানববন্ধনসহ নানা কর্মসূচি। সেই সময় ইলিয়াসের নিজ জন্মস্থান সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলা ছিল অগ্নিগর্ভ। ওই বছরই ২৩ এপ্রিল হরতাল চলাকালে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে নিহত হন তিন বিএনপি কর্মী। সব মিলিয়ে ইলিয়াস ‘নিখোঁজ’ ইস্যুতে সারা দেশে প্রাণ হারান আটজন। আহত হন অনেকে।

ইলিয়াসের গ্রামের বাড়ি বিশ্বনাথের রামধানা গ্রামের নিজাম উদ্দিন অনেকটা ক্ষুব্ধ কণ্ঠেই বললেন, ‘সরকার কিংবা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর মধ্যে ইলিয়াসকে খুঁজে বের করার কোনোও তৎপরতা নেই।’

বিশ্বনাথ উপজেলা বিএনপির সভাপতি জালাল উদ্দিন বলেন, ‘আমরা আজও আমাদের প্রাণপ্রিয় নেতার অপেক্ষায় আছি। তিনি ফিরে আসবেন, এমন স্বপ্ন দেখি আমরা। তার খোঁজ বের করার জন্য সরকারের প্রতি আবারও দাবি জানাচ্ছি।’

দীর্ঘ চার বছর পেরিয়ে যাওয়ার পরও সাধারণ মানুষের একটা বিরাট অংশ এখনো বিশ্বাস করে ইলিয়াস ‘বেঁচে আছেন’এবং তিনি ‘ফিরবেন’। এই ‘ফিরবেন’ বিশ্বাসের তালিকায় আছেন ইলিয়াসের স্ত্রী তাহসিনা রুশদির লুনা। স্বামীর অপেক্ষায় এখনো পথ চেয়ে বেদনাবিধুর প্রতীক্ষায় রয়েছেন তিনি। দুই ছেলে ও এক মেয়েকে নিয়ে প্রবল বিশ্বাসে ইলিয়াসের ফেরার অপেক্ষা করছেন লুনা।

লুনা বলেন, ‘ইলিয়াসকে ফিরি পেতে আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছি। খোদ প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন জানিয়েছি। কিন্তু তবু ইলিয়াসের সন্ধান পাইনি। এখন আমরা আল্লাহর দিকে চেয়ে আছি। আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, আজ হোক বা কাল হোক, ইলিয়াস ফিরবেন।’

এদিকে ইলিয়াসের সন্ধান দাবিতে আজ রোববার বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করবে সিলেট বিএনপি ও অঙ্গসংগঠন। এ ছাড়া ইলিয়াস মুক্তি সংগ্রাম পরিষদও বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নিয়েছে।

সিলেট জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ বলেন, ‘আমরা এখনো ইলিয়াস আলীর পথ চেয়ে আছি। এখনো আমরা তার সন্ধান দাবিতে আন্দোলন করছি। সরকারের প্রতি জোরালোভাবে দাবি জানাচ্ছি, অবিলম্বে ইলিয়াস আলীকে খুঁজে বের করা হোক।’

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like