যৌনতার প্রতীক নিয়ে আপত্তি নেহা ধুপিয়ার

201507241437723105660405887

বিনোদন ডেস্ক:  নগ্নতা। যৌনতা। যে কোনও অ্যাডাল্ট ছবি। আর সব কিছুতেই প্রতীকি মেয়েরা। কেন যৌনতার প্রতীক হিসেবে সবসময় মেয়েদেরই ধরা হয়? এ প্রশ্ন নিশ্চয়ই আপনার মনেও বহুবার এসেছে? কিন্তু উত্তর পাননি। আপনার মতো এই একই প্রশ্ন করেছেন বলিউডের অন্যতম হট নায়িকা নেহা ধুপিয়া। তাঁর মতেও, কেন সবসময় যৌনতার প্রতীক হিসেবে মেয়েদেরকেই দেখানো হবে?

বিজ্ঞাপনে যদি যৌনতার লেশমাত্রও থাকে, তাহলে সেখানেই ব্যবহার করা হয় কোনও মহিলা মডেলকে। শুধু বিজ্ঞাপনই বা কেন, যে কোনও বিষয়কেই আরও আকর্ষণীয় করে তুলতে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই মেয়েদের ছবি ব্যবহার করা হয়। এভাবেই আমরা ক্রমশ মেয়েদের যৌনতার প্রতীক করে তুলছি। এখানেই আপত্তি জানিয়েছেন বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী নেহা ধুপিয়া। প্রসঙ্গে তিনি বললেন, ‘সবাইকেই বলতে শোনা যায় যে, যৌনতাকে পরিপূর্ণ করে তুলতে পারে একমাত্র মেয়েরাই। এটাই আশ্চর্য লাগে। কেন সবসময় মেয়েদের যৌনতার প্রতীক হিসেবে দেখানো হবে? কেন ছেলেরা যৌনতার প্রতীক হতে পারেন না? কিন্তু গত কয়েক বছরে এই ধারণা খানিকটা বদলেছে। এখন আমরা জন আব্রাহামকে ‘দোস্তানায়’, শাহরুখ খানকে ‘দর্দে ডিস্কো’ গানে দেখতে পাই। যেখানে তাঁদেরকে সেক্স সিম্বল হিসেবে দেখানো হয়েছে।’

সম্প্রতি নেহা ধুপিয়াকে MTV ROADIES -এ দেখা যাচ্ছে। সেখানে ৪জন বিচারকের মধ্যে একা নারী তিনি। প্রসঙ্গে নেহা বললেন, ‘ROADIES-এর অভিজ্ঞতা অসাধারণ। ওখানে একটাও টাস্ক ছিল না, যেটাকে দেখিয়ে কেউ বলতে পারবে, এটা শুধুমাত্র ছেলেদের কাজ। তাই ছেলেদের কাজ যখন মেয়েরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে করতে পারছেন, তখন মেয়েদের কাজও ছেলেদের স্বতঃস্ফূর্তভাবেই করা দরকার। তবেই এই ধারণাটা বদলাবে।’

নেহার মতে, আসলে আমাদের ধারণাটাই এমন হয়ে গিয়েছে যে, যৌনতার কথা মনে এলেই সেখানে কোনও একটি মেয়ের ছবি ভেসে ওঠে। সম্ভবত সেই কারণেই মেয়েদেরকেই ধর্ষণের শিকার হতে হয়। তাই এবার আমাদের ধারণাটা আরও বদলানো প্রয়োজন। যৌনতার প্রতীক শুধুমাত্র মেয়েরাই নন, ছেলেরাও হতে পারেন।

-জি নিউস

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like