দুই মন্ত্রীর পদত্যাগে বাধ্যবাধকতা নেই -আইনমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক : দুই মন্ত্রীর পদত্যাগের প্রশ্নে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, ‘দুই মন্ত্রীর পদত্যাগ করার বাধ্যবাধকতা নেই। পদত্যাগ করবেন কিনা সেটি সম্পূর্ণ তাদের ব্যক্তিগত সিদ্ধান্তের বিষয়। এক্ষেত্রে শপথ ভঙ্গ বা আদালতের মান-মর্যাদা ক্ষুণ্ন হওয়ার মতো কিছু নেই।’ সোমবার (২৮ মার্চ) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার সাপ্তাহিক বৈঠক শেষে বেরোনোর পথে সাংবাদিকদের এ সংক্রান্ত প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এসময় সাংবাদিকদের সামনে সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘প্রধান বিচারপতিকে নিয়ে মন্তব্য করার বিষয়টি প্রথম থেকেই আমরা ভালোভাবে নেইনি। তবে তাদের পদত্যাগের বিষয়ে আজকের বৈঠকে কোনো ধরনের আলোচনা হয়নি।’

দুই মন্ত্রীর নৈতিকতার প্রশ্নে সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘আমি তাদের একজন কলিগ। সহকর্মী হিসেবে তাদের পদত্যাগের বিষয়ে আমার কথা না বলাই উচিত।’

এর আগে সোমবার মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে যোগ দেন আদালত অবমাননার অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত  মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক এবং খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম। সোমবার বেলা ১১টায় সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার এ বৈঠক শুরু হয়।

বৈঠকে প্রথমে আসেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। এসময় তার দু’পাশে ছিলেন  সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ও আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক। কিছুক্ষণ পরই বৈঠকে যোগ দেন খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম। এসময় তার দু’পাশে ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালকে বসে থাকতে ‍দেখা গেছে।

বৈঠকে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রীকে অনেকটা স্বাভাবিক দেখালেও খাদ্যমন্ত্রী ছিলেন বেশ গম্ভীর। টেলিভিশন ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজে এ তথ্য উঠে আসে।

উল্লেখ্য, আদালত অবমাননায় খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হককে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়। জরিমানার টাকা ইসলামিয়া চক্ষু হাসপাতাল ও কিডনি হাসপাতালে জমা দিতে বলেছেন আদালত। জমা না দিলে সাত দিন বিনাশ্রম কারাদণ্ডেরও আদেশ দেন আদালত। গতকাল রোববার (২৭ মার্চ) এ আদেশ দেন প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহা।

-বাংলামেইল২৪

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like