টেকনাফে দলীয় প্রার্থী বিপক্ষে এমপি বদি!

Mp bodiনিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজারটাইমসডটকম, ১৮ মার্চ : দেশব্যাপী নানা কারণে আলোচিত উখিয়া-টেকনাফের সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদি এবার টেকনাফের ইউপি নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছেন।
টেকনাফের ৬ ইউনিয়নের মধ্যে তিনি একটিতে কেবল নৈতিকভাবে আওয়ামীলীগের প্রার্থীর পক্ষে অবস্থান নিলেও অপর ৫ টিতে কৌশলে বিদ্রোহী ও জামায়াত প্রার্থীর পক্ষে অবস্থান নিয়েছে। তার সাথে আওয়ামীলীগের শীর্ষ ১০ নেতা সহ অনেকেই আওয়ামীলীগে বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছেন। এতে করে টেকনাফে আওয়ামীলীগের কাল হিসেবে আওয়ামীলীগ দাঁড়িয়ে আছে।
সূত্র মতে ২২ মার্চ টেকনাফের সাবরাং, সেন্টমার্টিন, টেকনাফ সদর, বাহারছড়া ইউনিয়নের ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। ২৭ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে হোয়াইক্যং ও হ্নীলা ইউনিয়নের নির্বাচন। এসব নির্বাচনে এমপি বদি হ্নীলা ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের পক্ষে থাকলেও অপর ৫টিতে বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে। এসব কারণে ইতিমধ্যে কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগ এমপি বদিকে অবাঞ্চিত করে বিবৃতিও প্রদান করেছে।
ছাত্রলীগের বিবৃতিতে বলা হয়, সীমান্ত এলাকার সাংসদ হওয়ায় বিভিন্ন সময় আলোচনা-সমালোচনায় থাকেন তিনি। দূর্নীতির অভিযোগে অভিযুক্ত হয়ে আওয়ামীলীগ সরকারের আমলেই তিনি জেল কেটেছেন। এছাড়াও ইয়াবা ও মানব পাচারের সাথে সংশ্লিষ্ট থাকার অভিযোগ রয়েছে বিতর্কিত এই সাংসদের বিরুদ্ধে। গত ১৭ই মার্চ কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইমরুল হাসান রাশেদ এক ফেইসবুক স্ট্যাটাসে ‘হাইব্রীড’ আওয়ামীলীগ উল্লেখ করে এমপি বদিকে ছাত্রলীগের যেকোন অনুষ্ঠান থেকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করেন। পরে সাধারণ সম্পাদকের সিদ্ধান্তের প্রতি সমর্থন জানিয়ে এমপি বদিকে লাল কার্ড দেখিয়ে ফেইসবুকে স্ট্যাটাস দেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ইশতিয়াক আহমেদ জয়।
এতে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ইশতিয়াক আহমেদ জয় বলেন, এমপি বদি আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের সাথে কোন রকম যোগাযোগ রক্ষা করেন না। দলীয় কর্মীরা অন্য দুই সাংসদকে কাছে পেলেও এমপি বদি থাকেন দূরে দূরে। আসন্ন স্থানীয় নির্বাচনে এমপি বদির বিতর্কিত ও রহস্যজনক ভূমিকা রয়েছে। টেকনাফের সাবরাং’য়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উন্নয়নের মহাপরিকল্পনা করলেও এমপি বদির রহস্যজনক ভূমিকায় সেখানকার মানুষ আজ দ্বিধা-দ্বন্দ্বে। সাবরাং’য়ে এমপি বদি বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী ইসমাঈল মেম্বারের পক্ষে গোপনে কাজ করছেন।
টেকনাফ সদর ইউনিয়নে সাবেক ছাত্রনেতা ও বর্তমান চেয়ারম্যান নুরুল আলমের বিপক্ষে গিয়ে এমপি বদি বিতর্কিত শাহজাহানের পক্ষে কাজ করছেন। টেকনাফের হোয়াইক্যং এ সাবেক ছাত্রনেতা ফরিদুল আলম জুয়েলের বিপক্ষে গিয়ে এমপি বদি বিএনপি-জামাত সমর্থিত প্রার্থী ইয়াবা ও মানবপাচারে সংশ্লিষ্ট নুর আহমদ আনোয়ারীর পক্ষে অবস্থান নিয়েছে।
এছাড়াও টেকনাফে আওয়ামীলীগের দলীয় প্রার্থীদের পক্ষে কোনভাবেই কাজ করছেন না এমপি বদি এমনটা অভিযোগ জেলা ছাত্রলীগ সভাপতির।
তিনি আরও বলেন- যদি স্থানীয় নির্বাচনে টেকনাফে আওয়ামীলীগের দলীয় প্রার্থীরা কোন কারণে হেরে যান তাহলে এমপি বদিকে পুরো কক্সবাজার থেকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করা হবে।
জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইমরুল হাসান রাশেদ জানান- সরকারী দলের সাংসদ হয়েও আওয়ামীলীগের দলীয় কোন অনুষ্ঠানে বদি সাহেবের দেখা মিলে না। দলের অতি গুরুত্বপূর্ণ অনুষ্ঠানে এমপি বদিকে দাওয়াত দেয়ার পরেও রহস্যজনক কারণে তিনি উপস্থিত হন না। আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের সাথে তাঁর নূন্যতম যোগাযোগ নেই উল্লেখ করে জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন- এমপি বদি হাইব্রীড আওয়ামীলীগ হিসেবে স্বীকৃত। দল ও নেতাকর্মীদের সাথে যেই সাংসদের সম্পর্ক নেই ছাত্রলীগের কোন অনুষ্ঠানে সেই সাংসদের উপস্থিত হওয়ার অধিকারও নেই।
একই সঙ্গে জেলা আওয়ামীলীগ টেকনাফের ১০ আওয়ামীলীগ নেতাকে ২৪ ঘন্টার জন্য সর্তককরণ করেছে। অন্যতায় তাদের বহিষ্কার করা হবে বলে উল্লেখ্য করা হয়। জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সিরাজুল মোস্তফা ও সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান এক বিবৃতিতে দলীয় প্রার্থীর বিপক্ষে অবস্থান নেয়ায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানানো হয়। এতে সর্তক করা নেতারা হলেন, টেকনাফ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি জাফর আহমদ (টেকনাফ উপজেলা চেয়ারম্যান), সহ সভাপতি শফিক মিয়া, সদস্য আবুল কালাম, সদস্য আহমদ হোসেন, টেকনাফ জাতীয় শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল লতিফ, সাবরাং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহেদ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক সাব্বির আহমদ মেম্বার, বাহারছড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান বাহার, টেকনাফ উপজেলা মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্ম লীগের সাধারণ সম্পাদক আজিজ উল্লাহ।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like