আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশের সামনে পাকিস্তান

অনুশীলনে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল

নিউজ ডেস্ক: বাছাই পর্বের বৃষ্টি বাঁধা পেরিয়ে বেশ ভালোভাবেই মূল পর্বে জায়গা করে নিয়েছে বাংলাদেশ। তামিম ইকবালের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে প্রতিপক্ষরা দাঁড়াতেই পারেনি টাইগারদের সামনে। এবার তাই সুপার টেনের আসল লড়াই শুরু সাকিব-মাশরাফিদের। যদিও বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাস খুব  বেশি লম্বা নয়। সেই তুলনায় অনেক বেশি এগিয়ে পাকিস্তান। সাবেক বিশ্বকাপ জয়ী শহীদ আফ্রিদির দলটা তাই নানা দিক থেকেই বাংলাদেশের চেয়ে শক্ত প্রতিপক্ষ।

তারপরও সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সের মাপকাঠিতে টাইগাররাই এগিয়ে থাকবে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এখন বাংলাদেশের সাফল্যই বেশি পাকিস্তানের চেয়ে। সেই পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বুধবার থেকে শুরু হবে বাংলাদেশের টি২০ বিশ্বকাপ মিশন। কলকাতার ইডেন গার্ডেনে বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৩টায় শুরু হবে ম্যাচটি। এ ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে মাছরাঙ্গা টেলিভিশন, গাজী টিভি ও স্টার স্পোর্টস।

১৯৯০ সালে কলকতার ইডেন গার্ডেনে শ্রীলংকার বিপক্ষে একমাত্র ম্যাচটি খেলেছিল বাংলাদেশ দল। এরপর এই ভেন্যুতে আর খেলা হয়নি বাংলাদেশের। অথচ বাংলাদেশের একেবারে পাশে কলকাতার এই ভেন্যুটি। ইডেন গার্ডেনে প্রায় ৭০ হাজারের মতো দর্শক এখানে বসে খেলা দেখতে পারেন। সেই মাঠে সুপার টেনের প্রথম ম্যাচটি খেলতে নামবে টাইগার ক্রিকেটাররা।

প্রথমবার ইডেন গার্ডেনে খেলতে নামলেও বুধবারের ম্যাচের পারিপার্শ্বিক সবকিছুই মাশরাফির দলের দিকেই হেলে আছে। টানা খেলার মধ্যে থাকা বাংলাদেশ দলটা দারুণ ফর্মে আছে। এশিয়া কাপ ফাইনালের পর বিশ্বকাপের প্রথম রাউন্ডে দাপুটে সব জয় পেয়েছে। অন্যদিকে পাকিস্তান এশিয়া কাপে খেলেছে অধোগতির ক্রিকেট। সঙ্গে নতুন করে যোগ হয়েছে, বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ বিষয়ক নানা নাটকীয়তা। সেসব উতরে ভারতে আসলেও শহীদ আফ্রিদির দলের মাঝে নির্ভার ভাবটা নেই। টাইগারদের কাছে টানা দুই টি২০ হারের স্মৃতি তাড়িয়ে বেড়াবে তাদের বুধবারের ম্যাচেও।

বাছাই পর্বে দুর্দান্ত খেলে আসা বাংলাদেশ সুপার টেনের ম্যাচে জয় তুলে নিতে আত্মবিশ্বাসী। জয়ের জন্যই মাঠে নামবে টাইগাররা। অভিজ্ঞতায় এগিয়ে থাকা পাকিস্তানকে ফেবারিটের তকমা দিলেও অধিনায়ক মাশরাফি জয় পেতেই রণ পরিকল্পনা সাজাবেন।

মঙ্গলবার ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ অধিনায়ক বলেনে, “হ্যাঁ, আত্মবিশ্বাস তো রয়েছেই। গত এক বছর ধরে আমরা ওয়ানডেতে দারুণ ক্রিকেট খেলছি। টি২০ সব সময় আমাদের জন্যে কঠিন। তবে শেষ তিন-চার সপ্তাহ আমরা টি২০তেও ভালো ক্রিকেট খেলছি। আমরা বেশ আত্মবিশ্বাস নিয়ে খেলেছি। এ আত্মবিশ্বাস আমাদের কাজে লাগবে।’

বাংলাদেশের একাদশে পরিবর্তন আসাই স্বাভাবিক। তাসকিন আহমেদ বোলিং অ্যাকশনের পরীক্ষা দিয়ে রাতেই দলের সঙ্গে যোগ দিবেন। আরাফাত সানি দলের সঙ্গেই আছেন। মুস্তাফিজের খেলার বিষয়টি এখনও নিশ্চিত নয়। তবে দল সূত্রের খবর, মুস্তাফিজ এ ম্যাচ থেকেই বিশ্বকাপ মিশন শুরু করবেন। ইডেনের উইকেটের ব্যাটিং সখ্যতা এবং কিছুটা স্লো হওয়ার সুবিধা দেখেই বুধবার সকালে একাদশ গঠন করবে বাংলাদেশ দল।

বাছাই পবের সব বাঁধা পেরিয়ে বেশ ভালোভাবে মূল পর্বে জায়গা করে নিয়ে বাংলাদেশ। তারপরও টি২০ ফরম্যাট বলে দারুণ সতর্ক মাশরাফি। এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ অধিনায়ক আরো বলেন, ‘এই ভেন্যুতে দলের সবাই ভালো করতে মুখিয়ে আছে। তবে আমরা যে ফরম্যাটে খেলতে নামছি। এখানে যে কোনও কিছুই হতে পারে। তারপরও আমাদের চেষ্টা থাকবে সেরাটা দেয়ার।

এর আগে পাকিস্তানের সঙ্গে ৯টি টি২০ ম্যাচ খেলেছে। তবে গত এক বছরে দুই বার টি২০তে মুখোমুখি হয়ে দুটোতেই জয় তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ দল। কিন্তু এর আগে ৭টি টি২০ ম্যাচেই হেরেছে টাইগাররা। কিন্তু দু’দলের সর্বশেষ দুই সাক্ষাতেই জয়ের স্মৃতি বাংলাদেশের দখলে।

গত বছর এপ্রিলে ও সদ্য সমাপ্ত এশিয়া কাপে শহীদ আফ্রিদির দলকে হারের লজ্জা দিয়েছিল মাশরাফি বাহিনী। তারপরও বুধবার টি২০ বিশ্বকাপের সুপার টেন পর্বে দু’দলের লড়াইয়ের আগে মাশরাফি বলেছেন, ম্যাচে পাকিস্তানই ফেবারিট। অভিজ্ঞতায় এগিয়ে থাকা শহীদ আফ্রিদির পাকিস্তানকে এগিয়ে রাখছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।

পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার, বিশ্বের অন্যতম সেরা ফাস্ট বোলার হিসেবে ওয়াকার ইউনুসের জন্য বিষয়টি একটু কষ্টকরই ছিল বলতে হবে। বল হাতে গতির তোড়ে, দুর্ভেদ্য ইয়র্ককারে স্ট্যাম্প ছত্রখানে সিদ্ধহস্ত ওয়াকার এখন পুরোপুরিই নিরুপায়। কারণ এখন যে তিনি পাকিস্তানের কোচ। তাই নীরবেই ‘খোচা’টা হজম করতে হলো ওয়াকারকে। মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলনের শুরুতেই তার প্রতি প্রশ্ন ছিল, তবে কী প্রথমবার বাংলাদেশ-পাকিস্তান ম্যাচে দু’দলের সম্ভাবনা ফিফটি-ফিফটি হয়ে গেছে?

এ প্রসঙ্গে পাকিস্তানের কোচ ওয়াকার বলেন, ‘দেখেন, প্রতিটি দলেরই উন্নতি করার অধিকার আছে। এটা বাংলাদেশ ও বিশ্ব ক্রিকেটের জন্য ভালো। গত ১৮-২৪ মাস তারা দারুণ ক্রিকেট খেলছে। বিশ্বকাপ থেকেই এটা দেখে আসছি। আমাদের বিরুদ্ধেও বাংলাদেশ ভালো করেছে। এমনকি ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষেও ভালো করেছে তারা। তাদের প্রতি আমাদের পূর্ণ শ্রদ্ধা আছে। এটা বড় মঞ্চ, ভিন্ন কন্ডিশন। তবে আমরা আশাবাদী আগামীকাল (বুধবার) ভালো ক্রিকেট খেলব।’

বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ: তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, সাব্বির রহমান, মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, মোহাম্মদ মিঠুন, মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), আল আমিন হোসেন, মুস্তাফিজুর রহমান/আবু হায়দার রনি ও তাসকিন আহমেদ।

পাকিস্তানের সম্ভাব্য একাদশ: সারজিল খান, আহমেদ শেহজাদ, মোহাম্মদ হাফিজ, সরফরাজ আহমেদ, শোয়েব মালিক, উমর আকমল, শহীদ আফ্রিদি (অধিনায়ক), ইমাদ ওয়াশিম, মোহাম্মদ আমির, ওয়াহাব রিয়াজ ও মোহাম্মদ ইরফান।

-বাংলামেইল২৪

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like