গোল মরিচের দারুণ উপকারী গুণ

নিউজ ডেস্ক: গোল মরিচের আদি উৎস দক্ষিণ ভারত। পৃথিবীর উষ্ণ ও নিরক্ষীয় এলাকায় এর চাষ বেশি হয়। বর্তমানে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি গোলমরিচ উৎপাদন কারী ও রপ্তানী কারক দেশ ভিয়েতনাম। প্রাচীন কাল থেকে গোল মরিচের গুঁড়া ইউরোপীয় দেশগুলোতে খাদ্যের মসলা হিসাবে ব্যবহার করা হয়। লতাজাতীয় উদ্ভিদ গোল মরিচের ফল শুকিয়ে মসলা হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

ঝাঁঝযুক্ত গোলমরিচ শুধু খাবারের স্বাদ বৃদ্ধিতে নয় পুষ্টিগুণেও সেরা। খাদ্যোপযোগী প্রতি ১০০ গ্রাম গোল মরিচে পাবেন ১৭ কিলো ক্যালরি, প্রোটিন ১১.৫ গ্রাম, ক্যালসিয়াম ৮৬০ মিলিগ্রাম, ফসফরাস ১৯৮ মিলিগ্রাম, আয়রণ ১৬.৮ মিলিগ্রাম, সোডিয়াম ১ গ্রাম, পটাসিয়াম ৯২ মিলিগ্রাম, খাদ্যআঁশ ১.৭ মিলিগ্রাম। তবে এই পুষ্টিমান গোল মরিচের উৎপাদনের স্থানের তারতম্যের জন্য কিছুটা পরিবতর্ন হতে পারে। গোল মরিচে থাকা পাইপারিন নামের রাসায়নিক উপাদানটি এর ঝাঁঝালো স্বাদ এনে দেয়। এখন জেনে নেব গোলমরিচের দারুণ উপকারী দিক সম্পর্কে।

– গোলমরিচ অন্ত্রের হাইড্রোক্লোরিক এসিড নিঃসরণ বাড়িয়ে দিয়ে খাবার হজমে সাহায্য করে।

– কফ, ঠাণ্ডাজনিত সমস্যা নিরাময় করে।

– গোলমরিচের বাইরের আবরণ দেহের চর্বিজাতীয় কোষ ভাঙতে সাহায্য করে। তাই ওজন কমানোর চিকিৎসায় ব্যবহার হয়।

– শরীর থেকে ক্ষতিকারক উপাদান বের করে দিতে সাহায্য করে।

– ক্যানসারের কোষের বৃদ্ধি ব্যাহত করে এবং তা প্রতিরোধ করে।

– প্রচুর পরিমানে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট আছে, যা উচ্চ রক্তচাপ ও অন্যান্য রোগের জন্য উপকারী।

– গোলমরিচের তেল ত্বক ভালো রাখে। বিশেষ করে ব্রণ দূর করতে সাহায্য করে।

– এটি দাঁত এবং মাড়ির সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করে। তাই সুস্থ থাকতে প্রতিদিনের খাবারে গোল মরিচ রাখতে পারেন।

-বাংলামেইল২৪

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like