দেশের প্রতি সাতজনের একজন কিডনি রোগী

দেশ ডেস্ক : বাংলাদেশের প্রতি সাতজনের মধ্যে একজন কিডনি রোগে আক্রান্ত বলে উঠে এসেছে এক জরিপে। অবশ্য সবাই সচেতন হলে কিডনি রোগে আক্রান্ত হওয়া রোগীর সংখ্যা নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হবে বলে বিশেষজ্ঞদের অনেকেই বলছেন।

কিডনি ফাউন্ডেশনের সভাপতি অধ্যাপক হারুন অর রশীদ বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু মেডিকেল আর কিডনি ফাউন্ডেশনের এক জরিপ অনুযায়ী দেশে প্রতি সাতজনে একজন কিডনি রোগী। ডায়াবেটিস রোগীর ৩০ থেকে ৪০ শতাংশ আর উচ্চ রক্তচাপে যারা ভুগছেন তাদের ১৮ থেকে ২০ শতাংশ ক্রনিক কিডনি রোগে আক্রান্ত হয়ে থাকেন।’

তবে এর চিকিৎসা এখন বাংলাদেশে সহজলভ্য বলেই মনে করেন চিকিৎসকরা। যদিও সেটি অনেক ব্যয়বহুল। এ প্রসঙ্গে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের কিডনি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক শহীদুল ইসলাম সেলিম বলেন, ‘একটা ডায়ালাইসিসি মেশিনের দাম দশ লাখ টাকা। এছাড়া প্রয়োজনীয় অনেক কিছুই বিদেশ থেকে আনা। তার মধ্যে যোগ হয়েছে ট্যাক্স। তবে সরকার ট্যাক্স কমিয়ে দিলে ডায়ালাইসিসের খরচ অনেক কমে যাবে।’

কেউ কেউ অবশ্য খরচ কমাতে রোগীকে বাসায় রেখে চিকিৎসা করান। শুধু ডায়ালাইসিসি করানোর জন্যে নির্ধারিত দিনে হাসপাতালে আনেন রোগীকে। তারপরও ৩০ থেকে ৪০ হাজারের মতো খরচ পড়ে যায়।

তেমনই একজন রোগি রাহেলা বেগম। জানান, ডায়ালাইসিস, ওষুধ, আনা-নেয়ার খরচ- সব মিলিয়ে মাসে তার ৩০ থেকে ৪০ হাজার টাকা ব্যয় হয়।

অবশ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, চিকিৎসা সরঞ্জাম ট্যাক্স কমানো ও দেশে উৎপাদনের ব্যবস্থাসহ সরকারিভাবে কিছু পদক্ষেপ নিলে কিডনি রোগের চিকিৎসার ব্যয় অনেকখানি কমিয়ে আনা সম্ভব।

-বাংলামেইল২৪

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like