টি-২০ বিশ্বকাপ: বাংলাদেশের সামনে আয়ারল্যান্ড

নিউজ ডেস্ক: বাছাই পর্বে বাংলাদেশের জন্য অনেক বড় বাঁধার নাম ছিল নেদারল্যান্ডস। সেই বাঁধা টাইগাররা অতিক্রম করেছে তামিম ইকবাল ও তাসকিন আহমেদের কাঁধে চড়ে। তাই বলে বাছাই পর্বের এই গ্রুপে থাকা বাকি দলগুলোকে খাটো করে দেখার অবকাশ নেই। আইরিশদের হারিয়ে সেটা ভালো করে বুঝিয়ে দিয়েছে ওমান।

এ গ্রুপে শক্তিশালী আয়ারল্যান্ডকে দুই উইকেটে হারিয়েছে ওমান। হিসেব করলে ছোট দল হওয়ায় ওমানের এই জয়ে কিঞ্চিত সুবিধা হয়েছে বাংলাদেশের। শুক্রবার বাছাই পর্বের দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ মরিয়া আয়ারল্যান্ড। আগের ম্যাচে ওমানের কাছে হেরে তেঁতে আছে আইরিশরা। হারলেই পত্রপাঠ বিদায় ইউরোপের এই দলটির। অন্যদিকে জিতলেই মূল পর্বের পথে অনেকটাই এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ। আজ শুক্রবার বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় ভারতের ধর্মশালায় আয়ারল্যান্ডের মুখোমুখি হবে মাশরাফি বাহিনী। এ ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে মাছরাঙা টেলিভিশন, গাজী টিভি ও স্টার্স স্পোর্টস।

টি২০ বিশ্বকাপের বাছাই পর্বের প্রথম ম্যাচটা বাংলাদেশ খেলেছিল স্থানীয় সময় বিকেল ৩টায়। যে কারণে বাংলাদেশের আবহাওয়ার মতোই মনে হয়েছে কিছুটা। ধর্মশালায় দিনে গরম ও রাতে কনকনে ঠান্ডা। শুক্রবার ম্যাচটা শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায়। তাই আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে লড়াইয়ের চেয়ে কনকনে ঠাণ্ডার বিপক্ষেও লড়াই করতে হবে সাকিব-মাশরাফিদের।

আইরিশরা অবশ্য প্রচণ্ড ঠাণ্ডায় অভ্যস্ত। এছাড়া তারা ওমানের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচটাও খেলেছে রাতের আলোতে। সে হিসেবে তাদের জন্য কন্ডিশন কিছুটা সহজ হতে পারে। দ্বিতীয় ম্যাচের  আগে একটি দুঃসংবাদ রয়েছে বাংলাদেশ শিবিরে। আগের ম্যাচে খেলা আরাফাত সানি ও পেসার তাসকিন আহমেদের বোলিংয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। যদিও শুক্রবার তাদের খেলতে কোনো বাধা নেই। তবে দলের দুই বোলারকে নিয়ে আইসিসি সন্দেহ প্রকাশ করায় ভীষণ হতাশা প্রকাশ করেছেন কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে।

টি২০তে দুই দলের প্রথম সাক্ষাতেই বাংলাদেশকে হারিয়েছিল আয়ারল্যান্ড। ২০০৯ টি২০ বিশ্বকাপে আইরিশরা জিতেছিল ৬ উইকেটে। ব্যাট হাতে ১৬ বলে ৩৩ করার পর বল হাতে দুটি উইকেট নিয়েছিলেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। শেষ পর্যন্ত সেদিন দলকে জেতাতে পারেননি নড়াইল এক্সপ্রেস। তবে দুই দলের পরের তিন টি২০ ম্যাচের সিরিজে জিতেছিল বাংলাদেশ দল। ২০১২ সালে আয়ারল্যান্ড সফরে বেলফাস্টে তিন ম্যাচের সিরিজে মুশফিকুর রহিমের দল জিতেছিল ৩-০ ব্যবধানে।

তবে এই ব্যবধান দেখে বোঝার উপায় নেই, সিরিজটি আসলে কতটা হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের ছিল। এই ফলাফল বলছে না, শেষ দুটি ম্যাচে আইসিসির সহযোগী দেশটিকে হারাতে কতটা বেগ পেতে হয়েছে টেস্ট খেলুড়ে দেশ বাংলাদেশকে। সেদিন একটু এদিক-সেদিক হলে সিরিজের ফল আইরিশদের পক্ষে চলে যেতে পারত।

টি২০ বিশ্বকাপের বাছাই পর্বের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশকে উদ্ধার করেছিলেন বাঁহাতি হার্ডহিটার ওপেনার তামিম ইকবাল। নেদাল্যান্ডসের বিপক্ষে শেষ পর্যন্ত ৮৩ রানে অপরাজিত ছিলেন তিনি। বাংলাদেশের আর কেউ বড় স্কোর করতে না পারায় ভাবাচ্ছে মাশরাফিকে। ধর্মশালায় উইকেটে ১৫০ রান স্বাভাবিক মনে হচ্ছে বাংলাদেশ অধিনায়কের কাছে।

তাই লক্ষ্যটা আরো বড় করে মাঠে নামতে হবে টাইগারদেরকে। মাশরাফি প্রথম ম্যাচে জয়ের পর বলেছেন, ‘আমরা যে ভাবনা নিয়ে এসেছিলাম বা এখানে এসে যা দেখেছি পরিস্থিতি তার চেয়ে আলাদা। প্রথম ম্যাচে আমরা সেটা উতরাতে পেরেছি। আশা করি, আরও আত্মবিশ্বাস নিয়ে পরের ম্যাচ খেলতে পারব।’

তবে পরিসংখ্যানে আইরিশদের চেয়ে অনেক এগিয়ে বাংলাদেশ। এখন পর্যন্ত দুদল চারবার মুখোমুখি হয়েছে। ২০০৯ সালে নটিংহ্যামে প্রথমবারের মুখোমুখিতে হেরেছিল বাংলাদেশ। পরের তিনটিতে জয় পেয়েছে টাইগাররাই। এরমধ্যে একবার এক রানে এবং আরেকবার দুই উইকেটের কষ্টের জয়। চার ম্যাচে সবচেয়ে বেশি রান আয়ারল্যান্ডের জেসি উইলসনের (১১০)। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রানটা বাংলাদেশের তামিম ইকবালের। তিনি করেছেন ৯২ রান। উইকেট নেয়ার দিক থেকেও এগিয়ে টাইগাররা।

সবার উপরে থাকা দুই বোলার আবদুর রাজ্জাক (১০) ও ইলিয়াস সানি (৬) অবশ্য বর্তমানে দলে নেই। তবে তৃতীয় স্থনে থাকা অধিনায়ক মাশরাফির উইকেটও ছয়টি। আইরিশদের বিপক্ষে বাংলাদেশ সর্বোচ্চ ১৯০ রান তুলেছিল, বেলফাস্টে ২০১২ সালে। তবে বাংলাদেশের ভাবনার কারণ হতে পারেন আয়ারল্যান্ডের টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যান। প্রথম ম্যাচে তিনজনই রান পেয়েছেন।

শুক্রবারের ম্যাচেও খেলতে পারবেন না মুস্তাফিজ। এমন ইঙ্গিতই দিয়েছেন বাংলাদেশ কোচ হাথুরুসিংহে। তিনি বলেছেন, ‘সে (মুস্তাফিজ) এখনও শতভাগ ফিট নয়। ফলে এখনও বলা মুশকিল, সে কাল (শুক্রবার) খেলবে কি না।’ তাসকিন ও আরাফাত সানির বোলিং অ্যাকশন প্রশ্নবিদ্ধ হলেও খেলতে পারবেন কালকের ম্যাচে। এ প্রসঙ্গে হাথুরুসিংহে বলেন, ‘তারা খেলতে পারবে। বল-ব্যাট সবই করতে পারবে’।

আয়ারল্যান্ডের ম্যাচের আগে শিশির বড় সমস্যা হতে পারে। তা মানছেন কোচও, ‘আমরা শংকিত সেটা (শিশির) নিয়েই। গত ম্যাচেই নাকি শিশির পড়েছিল এই মাঠে। সবকিছু মাথায় নিয়েই মাঠে নামব’।

কম শক্তির দল ওমানের কাছে টি২০ বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে হেরে তেঁতে আছে আইরিশরা। আশা বাঁচিয়ে রাখতে সর্বশক্তিতে ঘুরে দাঁড়াতে চাইবে দলটি। শুক্রবার ধর্মশালায় বাংলাদেশের বিরুদ্ধে জয়ের জন্য প্রাণপণই লড়বে পোর্টারফিল্ড শিবির। তবে টানা দুই জয়ে সুপার টেনের খেলা উজ্জ্বল করতেই চাইবে বাংলাদেশ দলও।

-বাংলামেইল২৪ডটকম

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like