গর্ভ ভাড়া আর নয়, যুক্তরাষ্ট্রে সফল জরায়ু প্রতিস্থাপন

স্বাস্থ্য ডেস্ক : ক্যানসারের মতো অসুখে যে মহিলাদের জরায়ু বাদ গিয়েছে, তারাও নিজের সন্তানের মা হতে পারবেন। অন্যের সন্তান দত্তক নিতে হবে না। মা হওয়ার স্বাদ পূরণ করতে কারও গর্ভ ভাড়া করার দিনও সম্ভবত এবার শেষ। চিকিত্‍‌সাশাস্ত্রের ইতিহাসে আরও একবার সফল জরায়ু প্রতিস্থাপন সম্পন্ন হওয়ার পর, আশাবাদী হওয়াই যায়। একই সঙ্গে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এটাই কিন্তু প্রথমবার সফল জরায়ু প্রতিস্থাপন।

আমেরিকার ক্লিভল্যান্ড ক্লিনিকের ডাক্তাররা জানিয়েছেন, তারা ইউটেরাস ট্রান্সপ্লান্টে সফল হয়েছেন। যে যুবতীর শরীরে জরায়ু প্রতিস্থাপন করা হয়, তার নাম যদিও প্রকাশ করা হয়নি।

ভারতের এক গণমাধ্যম জানিয়েছে, একজনের দান করা জরায়ু নিয়ে ২৬ বছর বয়সী এক যুবতীর শরীরে সেটি প্রতিস্থাপন করা হয়েছে। অস্ত্রোপচার করতে সময় লেগেছে পাক্কা ৯ ঘণ্টা।

ইউটেরাইন ফ্যাক্টর ইনফার্টিলিটি অর্থাত্‍‌ ইউটেরাস ছাড়াই যে মেয়েদের জন্মই হয়েছে, বা কোনও অসুখে ইউটেরাস বাদ গিয়েছে, অথবা ইউরেটাস থাকলেও, তা নিষ্ক্রিয়, এমন মহিলাদের জন্য সফল জরায়ু প্রতিস্থাপন চিকিত্‍‌সাবিজ্ঞানে গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ।

আমেরিকার এই চিকিত্‍‌সক দলটির ধারণা, প্রতিস্থাপন করা জরায়ু শরীরের সঙ্গে খাপ খাওয়াতে এক বছরের মতো সময় লাগবে। এর পরই গর্ভধারণের জন্য ধাপে ধাপে ওই জরায়ুতে ভ্রূণ স্থাপন করা হবে। এবং পুরো গর্ভধারণ কালে একই সঙ্গে অ্যান্টি-রিজেকশান ওষুধ দেওয়া হবে।

২০১৪ সালে সুইডেনের এক মহিলা জরায়ু প্রতিস্থাপনের পর প্রথমবার সুস্থ সন্তানের জন্ম দেন। এই দু-বছরে জরায়ু প্রতিস্থাপন করে সুইডেনে আরও অন্তত তিনটি শিশুর জন্ম হয়েছে। তবে, জরায়ু প্রতিস্থাপনের প্রয়োজনীয়তা নিয়ে চিকিত্‍‌সকদের একাংশ অবশ্য প্রশ্ন তুলেছেন।

-বাংলামেইল

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like