যুদ্ধাপরাধীদের সম্পদ বাজেয়াপ্ত করতে হবে

mojamal_hoq_832969962

একাত্তরে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতা বিরোধী অপরাধীদের বিচারের পাশাপাশি তাদের সম্পদ বাজেয়াপ্তের দাবি জানিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) রাতে জাতীয় সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এ দাবি জানান।

মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চলছে। শুধু বিচার করলেই হবে না। তাদের সম্পদও বাজেয়াপ্ত করতে হবে। যাতে তাদের ছেলে-মেয়েরা নির্বাচন অংশ নিতে না পারে।

‘তাদের ছেলে-মেয়েরা যাতে সরকারি চাকরি না পায়, সে ব্যবস্থাও করতে হবে। কারণ যুদ্ধাপরাধীদের ছেলে-মেয়েদের সরকারি দায়িত্ব দেওয়া যায় না।’

তিনি বলেন, জাতীয় সংসদ ভবন এলাকায় কিছু কবর আছে। এরমধ্যে আছে অনেক যুদ্ধাপরাধীর কবর। যথাযথ সংরক্ষণের জন্য সংসদ ভবন এলাকা থেকে এসব অবাঞ্ছিত কবর সরানোরও অনুরোধ করছি।

জিয়াউর রহমানের সমালোচনা করে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী বলেন, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার বন্ধ করার জন্য অধ্যাদেশ জারি করেছিলেন। পাশাপাশি বঙ্গবন্ধু হত্যাকারীদের দেশে এনে চাকরিও দিয়েছিলেন তিনি। এমনকি যুদ্ধাপরাধী শাহ আজিজ, আবদুল আলীমকে মন্ত্রী বানিয়েছিলেন জিয়া।

এসময় যুদ্ধাপরাধীদের দল জামায়াত নিষিদ্ধ করারও দাবি জানান তিনি।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like