জেলফেরত সঞ্জয়ের সম্বল মাত্র ৪৫০ টাকা

বিনোদন ডেস্ক: মুম্বাই বিস্ফোরণ মামলায় অবৈধ অস্ত্র রাখার অপরাধে গ্রেপ্তার ও সাজা ভোগ শেষে আগামীকাল জেল থেকে মুক্তি পেতে যাচ্ছেন বলিউডের অন্যতম সুপারস্টার অভিনেতা সঞ্জয় দত্ত। আর ফিরতি পথে জেল কর্তৃপক্ষ তাকে দিচ্ছে মাত্র ৪৫০ টাকা!

১৯৯৩ সালের মুম্বাই হামলার সময় একে-৪৭সহ বেশকিছু অবৈধ অস্ত্র নিজের কাছে রাখার দায়ে সাজা হয় মুন্না ভাই এমবিবিএস খ্যাত সঞ্জয় দত্তের। এতদিন পুনের ইয়েরওয়াড়া জেলে ছিলেন তিনি। ২৫ ফেব্রুয়ারি জেল থেকে ছাড়া পাচ্ছেন তিনি। আর জেলে থাকাকালীন নানান ধরনের কাজ করতে হতো সঞ্জয়কে। সেগুলোর সেলারিও কম নয়। ফিরতি পথে সেলারির একটা অংশ হিসেবেই তাকে জেল কর্তৃপক্ষ ৪৫০ টাকা দিতে যাচ্ছে!

হ্যাঁ। জেলের ভেতরে সবাইকেই কিছু না কিছু করতে হয়। আর কাজগুলো জেল কর্তৃপক্ষ এমনি এমনি করিয়ে নেয় না। কাজের বিনিময়ে মূল্যও পরিশোধ করে। আর সঞ্জয় দত্ত যেদিন থেকে জেলখানায় রয়েছেন, সেই থেকে তার কাজের উপর কর্তৃপক্ষ একটা নির্দিষ্ট বেতন দিয়ে যাচ্ছেন। সব মিলিয়ে সঞ্জয় দত্তের পাওনা হয়েছে ৩৮ হাজার টাকা!

কিন্তু জেল থেকে ফেরার সময় তার হাতে মাত্র ৪৫০ টাকা ধরিয়ে দিচ্ছে কেন জেল কর্তৃপক্ষ? বলছি, জেলের ভেতরে যে ক্যান্টিন আছে তা থেকে সঞ্জয় বাকী নিয়েছেন অন্তত সাড়ে সাত্রিশ হাজার টাকা। আর তার মুক্তির সময় হিসেব নিকেষ করে পাই পাই করে জেল কর্তৃপক্ষ তাকে ফেরৎ দিচ্ছেন মাত্র সাড়ে চারশো টাকা! এমন তথ্যই জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

অন্যদিকে সঞ্জয়ের মুক্তি উপলক্ষ্যে মানুষকে বিনামূল্যে চিকেন খাওয়াবেন বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মুম্বাইয়ে সঞ্জয়ের এক ভক্ত ও রেস্টুরেন্ট মালিক!

প্রসঙ্গত, ১৯৯৩ সালে মুম্বাইয়ে সংঘটিত ধারাবাহিক বোমা বিস্ফোরণে জড়িত লোকজনের কাছ থেকে অবৈধভাবে অস্ত্র রাখার অপরাধে সঞ্জয় দত্তকে দোষী সাব্যস্ত করেছিলেন ভারতের সর্বোচ্চ আদালত। আদালতের রায়ে পাঁচ বছরের জন্য পুনের ইয়েরাওয়াড়া জেলে কারাবাস করার কথা ছিল সঞ্জয়ের। তবে, নির্ধারিত সময়ের আগেই সদারচরণের জন্য জেল থেকে ২৫ ফেব্রুয়ারি মুক্তি পাচ্ছেন সঞ্জয় দত্ত।

-বাংলামেইল

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like